আফজাল হোসেন (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লাখনির কয়লা ও মধ্য পাড়া কঠিন শিলা খনিতে ঘটে যাওয়া দূনীতি কোনো ভাবে মন্ত্রী এমপিরা দায় এড়াতে পারেনা। ৩০ আগষ্ট বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০ টায় দিনাজপুরে ফুলবাড়ী উপজেলার রাবেয়া কমিউনিটি সেন্টারে প্রিন্ট ও ইলেট্রনিক মিডিয়ার সংবাদ কর্মীদের কে নিয়ে বড়পুকুরিয়ার কয়লখনি ও মধ্যপাড়া কঠিন শিলা প্রকল্পের কয়লা ও পাথর লুটপাটে সম্প্রতি ঘটে যাওয়া দুর্নীতি-কেলেঙ্কারী সম্পকে আলোচনার উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা সংসদের পক্ষথেকে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কেন্দ্রিয় কমিটির সহ সভাপতি (সাবেক মন্ত্রী ও এমপি) আলহাজ মোহাঃ মনসুর আলী সরকার তিনি তার বক্তব্যে বলেন, বড়পুকুরিয়া কয়ল খনি এবং মধ্য পাড়া কঠিন শিলা খনিতে ঘটে যাওয়া দুর্নীতি সর্বজনবিদিত এই ্এলাকার এই দুইটি জাতীয় খনি প্রকল্পে যারা পুকুর চুরি করে দুর্নীতি করেছে তা শুধু মাত্র খনির কর্মকর্তা কর্মচারি হতে পারে না, এই বড় দুর্নীতি রাজনৈতিক ক্ষমতাসীন দলের ব্যক্তিদের যোগসাজস ছাড়া হতে পারে না।
এ ক্ষেত্রে স্থানীয় প্রতিনিধি হিসেবে এই এলাকার এমপি মন্ত্রী কোনো ক্রমেই তার দায় এড়িয়ে যেতে পারে না। এই দুর্নীতি এক দিনে ঘটেনি। ছোটো থেকে বড় অনেকেই এই দুই খনির অবৈধ টাকায় আঙ্গুল ফুলে কলা গাছ হয়েছে এই বিষয়টি এলাকার মানুষ জানে তারা কিভাবে দেশের সম্পদ লুটপাট করছে। বড়পুকুরিয়া থেকে ১ লক্ষ ৪৪ হাজার মেঃটন কয়লা যাহার মূল্য ২ শত ৩০ কোটি টাকা এবং মধ্য পাড়া কঠিন শিলা খনি থেকে ৩ লক্ষ ৬০ হাজার মেঃটন পাথর যাহার মূল্য ৫৬ কোটি টাকা লোপাট হয়েছে। সরকারকে সঠিক তদন্ত করে দুষিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবী জানান। অপর দিকে তিনি সংবাদ সম্মেলনে বলে সরকারকে অংশ গ্রহন মূলক নির্বাচন দিতে হবে এবং গণতান্ত্রিক ধারায় গণ মানুষের নির্বাচিত সরকার চাই।
তিনি অনতি বিলম্বে সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশ নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবী করেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থেকে অন্যন্য দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ফুলবাড়ী থানা বিএনপির সহ সভাপতি মোঃ আব্দুল মজিদ মন্ডল, সহ সভাপতি সামসুল মন্ডল, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান থানা বিএনপির সদস্য মোঃ আইযুব আলী, বিজিবির সাবেক অবসর প্রাপ্ত ডিএডি মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মাহবুবুর আলম।