এম.এ.সালাম (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুর পৌরবাসীর দীর্ঘদিনের কাঙ্খিত শহরের ঘাগরা ক্যানেল দখলমুক্ত করতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, খনন ও দুইপারে গাছ লাগানো কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে।
সোমবার সকালে উচ্ছেদ অভিযানের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম। এ সময় দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম, দিনাজপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ফাইজুর রহমান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ফিরুজুল ইসলাম ফিরোজসহ প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারী, সাংবাদিক এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম আরো জানান, প্রথম দফায় ঘাগরা ক্যানেল খালের ১৫ কিলোমিটারের মধ্যে ৮ কিলোমিটার এলাকা দখলমুক্ত করা হবে। তিনি জানান, দীর্ঘদিন ধরে শহরের প্রধান দুইটি খাল গিরিজা ক্যানেল এবং ঘাগরা ক্যানেল খালের বেশীরভাগ অংশ বেদখল হয়েছিল। এর মধ্যে ১৫ কিলোমটির দীর্ঘ ঘাগরা ক্যানেল খালের পুলহাটের বড়পুল অংশ হতে উত্তরে মির্জাপুর বাস টার্মিনাল পর্যন্ত ৮ কিলোমিটার এলাকায় ৫৫৭টি স্থানে ৬৩টি পাকা, ২৫৭টি সেমিপাকা এবং ২৪০টি কাঁচা স্থাপনা রয়েছে। দখলমুক্ত স্থানে প্রথমে গাছ লাগানো হবে। পুনরায় বেদখল ঠেকাতে পরবর্তিতে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহন করবে সংশ্লিষ্ট বিভাগ।
এদিকে দিনাজপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী ফাইজুর রহমান জানান, জেলার আত্রাই, ছোট যমুনা, করতোয়া ইছামতিসহ ছোটবড় ১৯টি নদী প্রবাহিত রয়েছে। এছাড়াও ৬৫টি খাল এবং ৭৪টি জলাশয় রয়েছে। জেলার পানিসম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা কমিটির সুপারিশ মতে প্রথম দফায় প্রত্যেক উপজেলায় একটি করে এবং জেলা সদরে ১টিসহ মোট ১৪টি খাল পুনঃখনন করা হবে। দ্বিতীয় ধাপে ৫৯টি ছোট নদী, খাল এবং জলাশয় পুনঃখননের কাজ শুরু করার আগে দখলমুক্ত করা হবে।