মাহবুবুল হক খান (দিনাজপুর২৪.কম) অন্যান্য বাবেরমত এবারও সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে দিনাজপুর সদর উপজেলাসহ ৩টি উপজেলায় আজ রবিবার (২৩ মে) ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন মুসল্লিরা। দিনাজপুর শহরের চারুবাবুর মোড়স্থ পার্টি সেন্টারে, চিরিরবন্দর উপজেলার রাবার ড্যাম এলাকায় ও কাহারোল উপজেলার জয়নন্দ গ্রামের কয়েকশ’ পরিবারের মানুষ ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন।
রবিবার (২৪ মে) সকাল সাড়ে ৭টায় দিনাজপুর শহরের চারুবাবুর মোড়স্থ পার্টি সেন্টারে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেন শহর ও আশপাশের কয়েকটি এলাকার মানুষ। এই জামায়াতে পুরুষ, মহিলা ও শিশুসহ ১৭০-১৮০ জন মুসল্লি অংশগহণ করেন। এই জামায়াতে ইমামতি করেন সদর উপজেলার রানীগঞ্জ এলাকার মো. সাইফুল ইসলাম। তিনি ঢাকার বংশালে একটি কওমী মাদরাসার দাওরায়ে হাদিসের ছাত্র।
এছাড়া জেলার চিরিরবন্দর উপজেলার সাইতারা ইউনিয়নের রাবার ড্যাম, ফতেহজংপুর গ্রামে ও কাহারোল উপজেলার জয়নন্দ গ্রামের কিছু মানুষ আজ রবিবার ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন বলে জানা গেছে।
দিনাজপুর শহরের চারুবাবুর মোড়স্থ পার্টি সেন্টারে ঈদুল ফিতরের নামাজ শেষে মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে খুৎবায় একই দিন ঈদ ও কুরবানী করার যৌক্তিকতা তুলে ধরে সবাইকে একই দিনে ঈদ ও কুরবানী করার আহবান জানানো হয়। এ সময় পবিত্র কুরআনের আয়াতের আলোকে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবানও জানানো হয়।
এখানে নামাজ আদায়কারীদের কয়েকজন জানান, দিনাজপুরে প্রথমে শুধু চিরিরবন্দর উপজেলায় সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে ঈদের নামাজ আদায় করা হতো। কিন্তু বর্তমানে সদর উপজেলাসহ আরো কয়েকটি উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে আগাম ঈদের নামাজ আদায় করা হয়। তারা জানান, এবারে চিরিরবন্দর উপজেলার সাইতারা ইউনিয়নের রাবার ড্যাম এলাকায় ও কাহারোল উপজেলার জয়নন্দ গ্রামে আগাম ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, দিনাজপুর জেলায় ২০০৭ সাল থেকে সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে ঈদের নামাজ আদায় করে আসছে মুসলমানদের একটি অংশ। প্রথমে মুসল্লির সংখ্যা কম থাকলেও বর্তমানে ২০২০ সালে এসে তা বেড়ে ১৭০-১৮০ জনে পৌঁছেছে।