মো. আজিম (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুর শহরের পশ্চিম বালুয়াডাঙ্গা (হঠাৎপাড়া) এলাকার আবু মুসার ছেলে শাকিল এর কাছে ৫০ হাজার টাকা চাঁদাদাবী করে মোঃ আজিজুল’র পুত্র বরাত, মিরাজ এর পুত্র মানিক ও সোহাগ। ইজি বাইক চালক শাকিল ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে গত ২৩ জুন রাত আনুমানিক ০১ টায় ১ম আসামী বরাত, মানিক, সোহাগ ও তাদের সহকর্মী সোহেল মিলে শাকিলকে বাড়ী থেকে জোরপূর্বক বের করে রাস্তার উপর ফেলে হত্যার উদ্যোশ্যে লোহার পাইপ ও রড দিয়ে শাকিলকে মারপিট শুরু করে। এসময় শাকিলের মা মোছাঃ সাবিনা বেগমের আতœচিৎকারে এলাকাবাসী বের হয়ে আসলে দুর্বৃত্তরা শাকিলকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। দুর্বৃত্তদের হাত থেকে শাকিলকে উদ্ধার করে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।
পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, চলে যাওয়ার সময় চাঁদাবাজরা শাকিলকে হুমকি দিয়ে যায়, এব্যাপারে থানা পুলিশ বা বারাবারি করেছিস তাহলে তোকে দুনিয়া থেকে সরাই দিব। তারপরও মৃত্যুর ঝুঁকি নিয়ে শাকিলের মা সাবিনা বেগম এব্যাপারে গত ২৩ জুন দিনাজপুর কোতয়ালী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে। এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, বরাত, মানিক, সোহাগ ও সোহেলের নাকি হত্যা মামলা সহ বিভিন্ন মামলা রয়েছে।