এম, এ, সালাম (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরে বিরল উপজেলায় চাকুরি দেওয়ার নামে নজমুল ইসলাম নামের ব্যক্তির কাছ থেকে ৩ লাখ ৫৫ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছে তাহসানুর রহমান ওরফে (তাজু) বলে অভিযোগ পাওয়া গেছেে। পেশায় সে একজন মোহরী।  জানা গেছে, দিনাজপুর জেলার বিরল উপজেলার ৭নং বিজোড়া ইউনিয়নের মুরাদপুর সাতভায়া পাড়া এলাকার মৃত: মৃত ইব্রাহিমের পুত্র তাহসানুর রহমান ওরফে (তাজু) সমাজ সেবা অধিদপ্তরে চাকুরি দেওয়ার নাম ১ম পর্যায়ে তাজু ২ লাখ ৫৫ হাজার টাকা এবং পরে ২য় দফায় আরও ১ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। কিন্তু বিধি বাম সে কোন প্রকার চাকুরি দেওয়া দূরের কথা টাকা ফোন পর্যন্ত রিসিভ করে না। উক্ত মুহুরি তাজুর কাছ থেকে পাওয়া টাকা চায় নজমুল ইসলাম। তখন মুহুরি তাজু উক্ত নজমুল ইসলামকে পাওয়া টাকা চাওয়ায় তাকে গুম করার এবং হত্যার হুমকি দেয়। নজমুল ইসলাম জানান, তাজু যে আমার কাছে চাকুরির জন্য ৩ লাখ ৫৫ হাজার টাকা নিয়েছে দলিল এবং সাক্ষীগণের স্বাক্ষর পর্যন্ত আমার কাছে রয়েছে এবং বিষয়টি নিয়ে আমি গত ২১/০৫/১৮ তারিখে জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি/ সাধারণ সম্পাদককে লিখিত অভিযোগ দেই।
নজমুল ইসলাম সেই প্রতারক মুহুরি তাহসুনার রহমান তাজুর বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাৎ এবং প্রাণনাশের হুমকি বিষয়ে ২নং ফরক্কাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ তোসাদ্দেক হোসেনকে লিখিত অভিযোগ দেন এবং পরে বিরল থানায় আরও ১টি অভিযোগ দায়ের করেন। টাকা আত্মসাৎকারী তাজুকে ইউপি চেয়ারম্যান বিষয়টি নিষ্প্রতি করার জন্য লিখিত নোটিশ পাঠায়। কিন্তু চতুর মুহুরি তাহসানুর তাজু ইউপি চেয়ারম্যানকে কোন মূল্যায়ন না করে উল্টো বাদী নজমুল ইসলাম এবং ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে কোর্টে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। শুধু তাই নয় বাদীর অভিযোগ উক্ত মুহুরি তাজু বাদী নজমুলকে হত্যা এবং গুম করার হুমকি ধামকী অব্যাহত রেখেছে। বর্তমানে নজমুল ইসলাম পরিবার পরিজন নিয়ে জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে।