(দিনাজপুর২৪.কম) ব্রিটেনের সাধারণ নির্বাচনে বিপুল ব্যবধানে জয় পেয়েছে ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টি। ইতোমধ্যেই ৬৫০টি আসনের মধ্যে ৬০০ আসনের ফলাফল হাতে এসেছে। এর মধ্যে কনসারভেটিভ দল পেয়েছে ৩৩০টি আসন এবং লেবার পার্টি পেয়েছে ১৯৬ আসন।

এর মাধ্যমে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পার করে ফেলেছে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টি।

১৯৮৭ সালের পর এটা কনজারভেটিভ দলের জন্য সবচেয়ে বড় জয় এবং ১৯৩৫ সালের পর লেবার দলের সবচেয়ে বড় পরাজয়।

এদিকে দল না জিতলেও জয় পেয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত লেবার পার্টির চার নারী রাজনীতিক।

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ৯ প্রার্থীর মধ্যে এই ৪ নারী ব্রিটিশ পালামেন্টের সদস্য হিসেবে বিপুল ভোটে জয় পেয়েছেন। তারা হলেন-টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক, রূপা হক, রুশনারা আলী ও আফসানা বেগম। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা বাকি ৫ ব্রিটিশ বাংলাদেশি হেরে গেছেন। তাদের মধ্যে ৩ জন নারী এবং ২ জন পুরুষ।

টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক

লন্ডনের হ্যাম্পস্টেড ও কিলবার্ন আসন থেকে টানা তৃতীয়বারের মতো বিপুল ভোটে জয়ী হয়েছেন টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি, শেখ রেহানার মেয়ে।

২৮ হাজার ৮০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন টিউলিপ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভের জনি লুক পেয়েছেন ১৩ হাজার ৮৯২ ভোট।

টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক ২০১৫ সালে এই আসন থেকে প্রথমবার পার্লামেন্ট সদস্য নির্বা‌চিত হন। ২০১৭ সালের নির্বাচনে তিনি পুনঃনির্বাচিত হন। এবার তৃতীয়বারের মতো জয়ী হলেন টিউলিপ।

রূপা হক

যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডন শহরের ইলিং সেন্ট্রাল আসনে লেবার পার্টির হয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো বিজয়ী হয়েছেন রূপ হক।

নিকটতম প্রার্থীর চেয়ে দ্বিগুণ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন রূপা হক। তিনি পেয়েছেন ২৮ হাজার ১৩২ ভোট। আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টির জুলিয়ান গ্যালেন্ট পেয়েছেন ১৪ হাজার ৮৩২ ভোট।

২০১৫ সালে রূপা হক প্রথমবারের মতো এমপি নির্বাচিত হন। ২০১৭ সালেও তিনি নির্বাচিত হয়েছিলেন।

রুশনারা আলী

যুক্তরাজ্যের সাধারণ নির্বাচনে পূর্ব লন্ডনের ‘বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো’ আসনে লেবার পার্টির বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রার্থী রুশনারা আলী এবারও বিপুল ভোটের ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন।

রুশনারা আলীর প্রাপ্ত ভোট ৪৪ হাজার ৫২। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টির নিকোলাস স্টোভোল্ট। তিনি পেয়েছেন ৬ হাজার ৫২৮ ভোট।

২০১০ সালের নির্বাচনে রুশনারা আলী প্রথমবারের মতো ব্রিটিশ এমপি নির্বাচিত হন। তার ওই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টে বাংলাদেশিদের অভিষেক ঘটে। লেবার দলীয় রাজনীতিক রুশনারা এবার চতুর্থ দফায় ব্রিটিশ এমপি নির্বাচিত হলেন।

আফসানা বেগম

পূর্ব লন্ডনের পপলার অ্যান্ড লাইমহাউজ আসন থেকে প্রথমবারের মতো ব্রিটিশ এমপি নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশি আরেক কন্যা আফসানা বেগম। লেবার দলের প্রার্থী আফসানা পেয়েছেন ৩৮ হাজার ৬৬০ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ দলের প্রার্থী শন ওক পেয়েছেন ৯ হাজার ৭৫৬ ভোট।

প্রথমবারই বিপুল ব্যবধানে জয় পেলেন আফসানা। তার বিজয়ের মধ্য দিয়ে যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এমপির সংখ্যা বেড়ে হলো চারজন।  -ডেস্ক