(দিনাজপুর২৪.কম) আগের দিন বিশ্বকাপের স্বপ্নের দলে জায়গা হয়েছে তাদের। পরদিন বুধবার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের সুপার লিগের ম্যাচে ব্যাট বল হাতে ঝলসে উঠলেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। অলরাউন্ড নৈপুণ্যে জয় এনে দিয়েছেন আবাহনীকে। একই দিন রান পেয়েছেন সাব্বির রহমান, মোহাম্মাদ মিথুন ও অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। তবে আবারো ব্যাট হাতে ব্যর্থ হয়েছেন বিশ্বকাপ দলে থাকা সৌম্য সরকার।

আগের দিন বিশ্বকাপ দল ঘোষণা হয়ে যাওয়ায় এই ম্যাচে বিশ্বকাপের স্কোয়াডের খেলোয়াড়দের ওপর দৃষ্টি ছিলো সবার। আশার কথা ব্যাট কিংবা বল হাতে সবাই সন্তুষ্ট করেছেন সমর্থকদের। ব্যতিক্রম ছিলেন সৌম্য সরকার। টানা ব্যর্থতার মধ্যে দিয়ে যাওয়া এই বামহাতি ব্যাটসম্যান সুবিধা করতে পারেননি ব্যাট হাতে। টানা তিন ম্যাচে উইকেট শূন্য থাকার পর ছন্দে ফিরেছেন জাতীয় ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। ৮ দশমিক ৩ ওভার বোলিং করে ৩ উইকেট্ নিয়েছেন ৪০ রানে। আর ব্যাট বল দুই ভুমিকাতেই ঝলসে উঠেছেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।  বাড়তি একজন স্পিনারের প্রয়োজন বোধ করার তাকে শেষ মুহূর্তে বিশ্বকাপ দলে অন্তর্ভূক্ত করেছন নির্বাচকরা। এদিন ব্যাট হাতে অপরাজিত হাফ সেঞ্চুরির পাশাপাশি বল হাতে ৩৬ রানে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা হয়েছেন মোসাদ্দেক হোসেন।

কেএসপির তিন নম্বর মাঠে বুধবার সুপার লিগে মুখোমুখী হয় আবাহনী ও মোহামেডান। জাতীয় দলের তারকায় ভরা আবাহনী এই ম্যাচেও দাপুটে জয় তুলে নিয়েছে। টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে সাব্বির রহমানের ৫৩ বলে ৬৪, মোহাম্মদ মিথুনের ৫২ বলে ৫৬, অধিনায়ক মোসাদ্দেক হোসেনের অপরাজিত ৫৪ ও সাইফুদ্দিনের ৩৫ বলে ৪১ রানে ভর করে ৭ উইকেটে ৩০৪ রান তোলে।

বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকা ৬ জন খেলোয়াড় এই ম্যাচে খেলেছেন আবাহনীর হয়ে। এর মধ্যে মাশরাফি বিন মুর্তজা ব্যাট করার সুযোগ পাননি। অন্যদের মধ্যে সৌম্য সরকার ছাড়া বাকি সবাই ছিলেন সফল। সৌম্য সরকার এদিনও ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বের হতে পারেননি। ২৪ বলে ১৭ রানে শফিউলের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফিরে গেছেন।

এই রান তাড়া করতে নেমে মোহামেডানের শুরুটা ছিলো যাচ্ছেতাই। বিশ্বকাপ দলে থাকা লিটন দাস এদিন মোহামেডানের একাদশে ছিলে না। ২০ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলা দলটির মিডল অর্ডারে জাতীয় দলের সাবেক দুই ব্যাটসম্যান হাল ধরলেও তা জয়ের জন্য যথেষ্ট ছিল না। রকিবুল হাসানের ৯৬ ও মোহাম্মদ আশরাফুলের ৬৮ রানে ভর করে শেষ পর্যন্ত মোহামেডান ২৫৯ রানে অলআউট হয়েছে।
আবাহনীর হয়ে মোসাদ্দেক হোসেন ও মাশরাফি ৩টি করে উইকেট নিয়েছেন।

দিনের অপর ম্যাচে লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে শেখ জামাল ক্লাব। ব্যাট হাতে খারাপ করলেও বল হাতে দুটি উইকেট নিয়েছেন সৌম্য সরকার। আর পেস বোলিং অলরাউন্ডার সাইফুদ্দিন নিয়েছেন ১টি উইকেট। -ডেস্ক