হাফিজুর রহমান হাবিব (দিনাজপুর২৪.কম) তেঁতুলিয়ায় মধ্যরাতে বৈদ্যুতিক অগ্নিকান্ডে পুড়ে ছাই হয়েছে একটি পরিবারের ঘর-বাড়ি। এর সাথে ক্ষতি হয়েছে প্রায় ২০ লক্ষ নগদ টাকাসহ ঘরের আসবাবপত্র। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ১০ জন। এদের মধ্যে গুরুতর আহত মামুন (৩২), হামিদুল ইসলাম (২৮) ও মোছা.সেলিনা (২৬)। তাদের দ্রুত ঘটনাস্থল হতে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। মামুনের অবস্থা জটিল হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য জেলা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় তেঁতুলিয়া আবাসিক প্রকৌশলী কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের চরম গাফিলতির কারণে এই ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারসহ এলাকাবাসী।
শুক্রবার (৩০ জুন) রাত সোয়া ২টায় উপজেলা শালবাহান রোডস্থ মাঝিপাড়া গ্রামে ঘটে এই ঘটনা। এলাকাবাসী ও ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার জানায়, রাতে সবাই ঘুমিয়ে যাই, হঠাৎ বৈদ্যুতিক তারে আগুন লাগতে দেখে আতংকে উঠি। আমাদের আর্তচিৎকার শুনে ছুটে আসে প্রতিবেশীরা। এসময় মামুনের  স্ত্রী-সন্তানসহ অন্যান্যকে বাঁচাতে গিয়ে গুরুতর আহত হন হামিদুল ও তার স্ত্র্রী সাহিদা খাতুন। এসময় পাশের বাড়িতে আগুন দেখে নিজের ঘরের বিদ্যুতের সুইচ বন্ধ করতে গিয়ে বিদ্যুৎ পিষ্ট হন সেলিনা আক্তার নামের আরেক নারী।
খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন ফায়ার সার্ভিস, মডেল থানা ও হাইওয়ে পুলিশ। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে পারলেও বৈদ্যুতিক লাইন বন্ধ না হওয়ায় চরম আতংকে কান্নাকাটি করতে থাকে পরিবারগুলো। বিদ্যুৎ লাইন বন্ধের জন্য বারবার আবাসিক প্রকৌশলী কার্যালয়ের কর্মকর্তা/কর্মচারীকে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলেও ফোন রিসিভ না করার অভিযোগ এলাকাবাসির। পরে বিদ্যুতের জাতীয় গ্র্রীডে বিদ্যুৎ বন্ধ করা হয় বলে জানা যায়।
বৈদ্যতিক অগ্নিকান্ডে চারটি পরিবারের টিভি, ফ্যান, ফ্রিজ, মটরসহ অনেক ইলেকট্রনিক যন্ত্রাংশ পুড়ে যায়। সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, আহত মামুনের ঘর-বাড়ি পুড়ে ছাই হয়েছে। ঘরের আসবাবপত্রসহ নগদ টাকা মিলে প্রায় ৩০ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে। প্রতিবেশি জাকারিয়া জানান, আমার ঘরের টিভি, কারেন্টের লাইন ও মটর পুড়ে গেছে। পাশের বাড়ি হেলাল ও হামিদুলেরও একই ক্ষতি হয়েছে। এ ঘটনায় উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউল করিম শাহিন, নির্বাহী অফিসার সানিউল ফেরদৌস,আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব কাজী মাহবুবুর রহমান (ডাবলু) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্থদের সাহায্য-সহযোগিতার আশ্বাস দেন।