বি.এম. জুলফিকার রায়হান (দিনাজপুর২৪.কম)  তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে সংগ্রহ করা করোনা ভাইরাসের নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে আরও ৬জন ব্যক্তির পজেটিভ রিপোর্ট এসেছে। রোববার (২৮ জুন) সকালে তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্র থেকে এই তথ্য জানা গেছে। আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা এবং উপজেলা এলজিইডি’র প্রকৌশলী রয়েছেন।
জানাগেছে, তালা উপজোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে পাঠানো নমুনা পরীক্ষা শেষে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (যবিপ্রবি) জিনোম সেন্টার থেকে রোববার নতুন রিপোর্ট প্রকাশিত হলে তালার ৬জন ব্যক্তির করোনা পজেটিভ সনাক্ত হয়। পজেটিভ হওয়া ব্যক্তিরা হচ্ছেন, তালা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রাজীব সরদার (৩৬), তালা উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী আব্দুল মজিদ মোল্যা (৫৮), হাসপাতালের প্রধান হিসাব রক্ষক মো. হাফিজুর রহমান (৫৮), গত শুক্রবার সকালে বারুইহাটি গ্রামে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া তালা বাজারের ব্যবসায়ী বজলুর রহমান (৪৮) ও তার ছেলে মাসুদুর রহমান (২০) এবং পাইকগাছা উপজেলার মো. দেলোয়ার হোসেন (৪৭)।
তবে, দেলোয়ার হোসেন’র বাড়ি পাইকগাছা উপজেলাতে এবং সে তার নিজ বাড়িতে বসবাস করায় তালা উপজেলায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫জন এবং এপর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছেন ২৯ জন।
এদিকে তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের কলিয়া গ্রামের (বর্তমানে তালা সদরে বসবাসরত) মো. লুৎফর রহমান মোড়ল (৪৯) পুনারায় পরীক্ষায় করোনা ভাইরাস নেগেটিভ হয়েছেন। একারনে তার বাড়ি থেকে লকডাউন উঠিয়ে নেয়া হয়েছে। এনিয়ে তালা উপজেলা ৫ নারীসহ মোট ২৯ জন ব্যক্তি করোনা পজেটিভ সনাক্ত হলেও ইতোমধ্যে ২জন নারীসহ ৫ জন করোনাকে জয় করে সুস্থ্য হয়েছেন। আর করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট আসার আগেই বজলুর রহমান করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন।
তালা থানার ওসি (তদন্ত) শেখ সেকেন্দার আলী জানান, তালা থানার অধিন নতুন করে আক্রান্ত ৩জন সরকারি কর্মকর্তার বাসভবন এবং বারুইহাটি গ্রামের করোনায় মৃত বজলুর রহমান এর বাড়ি সহ তার বাড়ির আশপাশের বাড়িগুলো রোববার লকডাউন করা হয়েছে।