বি. এম. জুলফিকার রায়হান (দিনাজপুর২৪.কম) তালার তেতুঁলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. বাবর আলী ওরফে বাবু মোড়ল এক মহিলা সহ আটক হয়েছে। মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে একই গ্রামের ২ সন্তানের জননীর বাড়ি থেকে পুলিশ তাকে আটক করে। এরআগে অনৈতিক কর্মকান্ডের অভিযোগে গ্রামের লোকজন তাদের দু’জনকে ঘরবন্ধী করে রাখে।
জানাগেছে, উপজেলার আড়ংপাড়া গ্রামের মৃত. মোকাম আলী গাজীর ছেলে ইউপি সদস্য মো. বাবর আলী মোড়ল (৪৫) এর সাথে একই গ্রামের শহিদুল ইসলাম গাজী’র স্ত্রী ফজিলা বেগম (৩৫) এর অনৈতিক সম্পর্ক চলছিলো। গৃহবধু ফজিলা বেগম’র স্বামী শহিদুল ইসলাম ইট ভাটার কাজে এলাকার বাইরে থাকায় ইউপি সদস্য বাবর আলী মঙ্গলবার রাতে তার বাড়িতে যায়। এসময় ঘরের দরজা বন্ধ করে বাবর আলী ও ফজিলা বেগম অনৈতিক কাজে লিপ্ত হলে আশপাশের মানুষ দরজার বাইরে থেকে তালা আটকিয়ে তাদের ঘরবন্ধী করে রাখে। একই সাথে উত্তেজিত জনতা ঘটনাটি তালা থানা পুলিশকে জানালে জাতপুর ক্যাম্পের পুলিশ তাদের আটক করে থানায় সোপর্দ করে।
এবিষয়ে জাতপুর ক্যাম্প ইনচার্জ সাইদুর রহমান জানান, ঘটনার খবর পেয়ে দীর্ঘ ১ ঘন্টা চেষ্টার পর ঘরের তালা ভেঙে মহিলার ঘর থেকে তাদের দু’জনকে আটক করা হয়। সেসময় ইউপি সদস্য বাবর আলী মহিলার ঘরের খাটের নিচে লুকিয়ে ছিল। মঙ্গলবার রাত ১২টর দিকে তাদের তালা থানায় পাঠানো হয়।
তালা থানার ওসি মো. মেহেদী রাসেল বলেন, অনৈতিক কাজের অপরাধে বাবর আলী সহ ফজিলা বেগম কে বুধবার সাতক্ষীরা জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে ।
ইউপি সদস্য বাবর আলী ইতোপূর্বে ৩টি বিবাহ করে এবং তার ২ স্ত্রী বর্তমান আছে। এছাড়া তার ২টি সন্তান রয়েছে। অপরদিকে গৃহবধু ফজিলা বেগম’র ১ ছেলে ও ১ মেয়ে সন্তান রয়েছে। ওই মেয়েকে কেদ্র করে ইতোপূর্বে বাবর আলী নারী ঘটিত মামলায় আসামী হন।