বি. এম. জুলফিকার রায়হান (দিনাজপুর২৪.কম) তালার মাগুরা বাজার সংলগ্ন প্রায় ২শ’ বছরের পুরাতন ঐতিহ্যবাহী খেলার মাঠের জমি দখল চেষ্টা চালাচ্ছে এলাকার একটি দূর্বৃত্তচক্র। স্থানীয় ক্লাব’র নেতৃবৃন্দ সহ তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর নির্দেশ অমান্য করে জমি দখল চেষ্টা অব্যাহত রাখায় জনমনে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে। অবিলম্বে প্রশাসন খেলার মাঠের জমি উদ্ধার না করলে এলাকায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ঘটার সম্ভাবনা বিদ্যমান রয়েছে।
মাগুরা যুব সংঘ’র সাধারন সম্পাদক শেখ আব্দুল আলীম নিটোল জানান, মাগুরা বাজার সংলগ্ন মাগুরা যুব সংঘ’র নিয়ন্ত্রনাধিন সরকারি খেলার মাঠটি প্রায় ২শ’ বছরের পুরাতন। এই মাঠে ওয়াজ মাহফিল সহ বিভিন্ন ক্রীড়া টূর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া এলাকার যুব সমাজ এই মাঠে খেলা করে। কিন্তু মাগুরাডাঙ্গা গ্রামের মৃত. নওয়াব আলী খাঁ’র পুত্র চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও বহু অপকর্মের হোতা সেলিম খাঁ উক্ত খেলার মাঠ সহ মাঠ সংলগ্ন কপোতাক্ষ নদের জমি জোর দখল করতে চেষ্টা চালাচ্ছে। বিষয়টি জানতে পেরে মাঠ দখল রোধে তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ফরিদ হোসেন’র নিকট আবেদন করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইতোমধ্যে সরজমিন এসে জমি দখল না করার জন্য সেলিমকে নির্দেশ দেন। এছাড়া মাগুরা যুব সংঘ’র সভাপতি ও সম্পাদক সহ ক্লাবের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ জমি দখল করতে সেলিমকে নিষেধ করেন। কিন্তু এই সকল নির্দেশ উপেক্ষা করে সেলিম খেলার মাঠ সংলগ্নে কপোতাক্ষ নদের বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ দখল সহ মাঠের সীমানার জমি জোর দখল করে বসত ঘর নির্মান ও চাষাবাদ শুরু করেছে। এঘটনার সময় মাগুরা যুব সংঘ’র সভাপতি সরদার মোজাম্মেল হককে প্রকাশ্যে অপদাস্থ ও হুমকি ধামকি প্রদান করে।
এলাকাবাসীর অভিযোগ, একাধিক মামলার আসামী ও চিহ্নিত অপরাধি সেলিম খাঁ বিভিন্ন মামলায় একাধিকবার জেল হাযত খেটেছে এবং একটি অপরাধি চক্র তার নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে নিজ স্ত্রী হত্যা সহ বিভিন্ন অনৈতিক কাজে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। খেলার মাঠের জমি দখল করার দিন সে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের সাথে নিয়ে এলাকায় মহড়া জনমনে আতংক ছড়িয়ে দেয়। বর্তমানে ২শ’ বছরের পুরাতন খেলার মাঠটি সেলিম খাঁ যে কোনও সময় জোর দখল করতে পারে বলে আশংকা দেখা দিয়েছে। যে কারনে, সরকারি খেলার মাঠটি রক্ষা সহ মাঠ সংলগ্নের জমি উদ্ধারে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহনে উর্দ্ধতন প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছে এলাকাবাসী।