(দিনাজপুর২৪.কম) ক্লাব পর্যায়ে দু’জনই খেলেন এক দলে। স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনার অগ্রসৈনিক নেইমার ও লুইস সুয়ারেজ। একই সঙ্গে গত মৌসুমে কাতালানদের হয়ে জেতেন ৫ শিরোপা। কিন্তু শনিবার তারা মাঠে নামেন একে অপরের বিপক্ষে। ২০১৮-রাশিয়া বিশ্বকাপের বাচাইপর্বে মুখোমুখি হয় ব্রাজিল ও উরুগুয়ে। এই ম্যাচে আগে দুই দলের মুখোমুখি নিয়ে যতটা না আলোচনা ছিল তার বেশি ছিল নেইমার-সুয়ারেজের মুখোমুখি নিয়ে। আর উত্তেজনাময় এ ম্যাচে দুই দলের কেউ জেতেনি। ব্রাজিলের রেসিফির ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়েছে। তবে ব্যক্তিগত নৈপুণ্যে উরুগুয়ের স্ট্রাইকার সুয়ারেজ ক্লাব সতীর্থ নেইমারকে হারালেন। মাত্র ২৬ মিনিটের মধ্যে ২-০ গোলে এগিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত স্বাগতিক ব্রাজিলকে ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়। এই ম্যাচে দর্শকদের আলাদা নজর ছিল লুইস সুয়ারেেজর দিকে। ২০ মাস তখা ৬৪০ দিন পর আন্তর্জাতিক ফুটবল ম্যাচে দেশের হয়ে মাঠে নামেন তিনি। ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপে ‘কামড়-কা-ে’ দীর্ঘ নিষেধাজ্ঞায় পড়েন তিনি। ইতালির ডিফেন্ডার জর্জিও কিয়েলিনির বাহুতে তার কামড়ের দৃশ্য এখনও সবার চোখের সামনে। ওই অপরাধের শাস্তি ভোগ করে রাজার মতোই ফিরলেন তিনি। এদিন ৪৮ মিনিটে উরুগুয়ের সমতাসূচক গোলটি আসে তার পা থেকে। অবশ্য ম্যাচের শুরুতেই সফরকারী উরুগুয়েকে চমকে দেয় ব্রাজিল। ম্যাচ শুরু হওয়ার মাত্র ৪২ সেকেন্ডের মাথায় স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন ডগলাস কস্তা। আর ২৬ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রেনাতো অগাস্তো। প্রধমার্ধে ২-০ গোলে এগিয়ে থেকে দারুণ সুবিধাজনক অবস্থানে ছিল ব্রাজিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেনি তারা। একটু পর পাল্টে যায় দৃশ্য। উরুগুয়ের ফরোয়ার্ডরা একের পর এক আক্রমণ করে অতিষ্ট করে তোলে ব্রাজিলের রক্ষণভাগ। এরই ধারাবাহিকতায় ৩১ মিনিটে সফরকারীদের ব্যবধান কমান প্যারিস সেইন্ট জার্মেই’র (পিএসজি) স্ট্রাইকার এডিনসন কাভানি। আর দ্বিতীয়ার্ধে ৪৮ মিনিটে উরুগুয়েকে সমতায় ফেরান বার্সেলোনার স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ। এতে ৫ ম্যাচে ৩ জয়, ১ ড্র ও ১ হারে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের ১০ দলের গ্রুপে ১০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে উরুগুয়ে। আর ৮ পয়েন্ট নিয়ে ঠিক তাদের পরে ব্রাজিল। ১৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে ইকুয়েডর।-ডেস্ক