(দিনাজপুর২৪.কম) ছাত্রলীগের নির্মম নির্যাতনে নিহত বুয়েটছাত্র আবরার ফাহাদের ছোট ভাই আবরার ফায়াজ ঢাকা কলেজ ছেড়েছেন। সে আর ঢাকায় কলেজে পড়তে চায় না। যে শহরে তার ভাইকে পিটিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে, সেই শহরেও থাকতে চায় না। ইতিমধ্যে তার ছাত্রপত্রও হয়ে গেছে। আজ মঙ্গলবারই ছাড়পত্র নিয়েছে সে।

ফায়াজ ঢাকা কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিলো। কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে পড়বে সে।

ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের কলেজ শাখার এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বিশেষ ব্যবস্থায় সে আজকে আবেদন করেছে এবং আজকেই তার ছাড়পত্র মঞ্জুর করা হয়েছে।

এ বিষয়ে আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ বলেন, ছাড়পত্র নেয়ার সব কাজ শেষ হয়েছে। ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষের সঙ্গে দেখা করে ছাড়পত্র নেয়া হয়।

কুষ্টিয়ায় ফিরে কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে বিজ্ঞান বিভাগে তাকে (ফায়াজ) ভর্তি করা হবে।

ঢাকা কলেজের উপাধ্যক্ষ কে টি এম মাইনুল হোসেন জানান, ফায়াজ ছাড়পত্র নিয়ে কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে পড়তে চায়। কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ কাজী মনজুর কাদির বলেন, কলেজে বিজ্ঞান বিভাগে আসন শূন্য। তারপরও কুষ্টিয়া-৩ আসনের সাংসদ মাহবুব উল আলম হানিফ ও জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেনের মাধ্যমে জানা  গেছে বিষয়টি সরাসরি প্রধানমন্ত্রী দেখছেন। তাই এটা নিয়ে যশোর বোর্ডের চেয়ারম্যানের সঙ্গেও কথা হয়েছে। আসামাত্রই তাকে (ফায়াজ) ভর্তি করানো হবে। এটা খুবই স্পর্শকাতর ও এটিকে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হবে।

ভারত-বাংলাদেশ চুক্তি নিয়ে ফেসবুকে দেয়া স্ট্যাটাসের জের ধরে গত ৬ই অক্টোবর বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়েল শেরেবাংলা হলের আবাসিক ছাত্র আবরারকে তার কক্ষ থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে পিটিয়ে হত্যা করে ছাত্রলীগ নেতারা। -ডেস্ক