(দিনাজপুর২৪.কম) জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি ধর্মের প্রথম শর্তই হলো মানব সেবা উল্লেখ করে বলেছেন, চিকিৎসকরা মানব সেবার প্রথম কারিগর। বর্তমান সরকার জনগনের দোড়গোড়ায় চিকিৎসা সেবা পৌছে দিতে সকল ধরনের ব্যবস্থা গ্রহন করেছে। চিকিৎসকদের সেই সেবা প্রদানে সচেষ্ট থাকতে হবে। জেলা ও উপজেলা এলাকার জন্য ইন্টানি চিকিৎসকরা প্রাণ শক্তি উল্লেখ করে আরও বলেন, বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা জেলা উপজেলায় থাকতে চান না। ইন্টার্নি চিকিৎসকদের গ্রামাঞ্চলের রোগীদেরকে আপন করে নিতে হবে। সন্ধানী  রক্ত বিতরনের একটি প্রতিষ্ঠান। দুঃস্থ অসহায় ও সাধারন মানুষ সন্ধানীর দিকে চেয়ে থাকে। সন্ধানীকে সেই নৈতিক দায়িত্বটুকু গুরুত্বের সাথে পালন করতে হবে। আর এ দায়িত্বের মধ্যে রয়েছে ধর্মের ইঙ্গিত। হুইপ ইকবালুর রহিম ২ মে সোমবার বিকেলে নাজমা রহিম ফাউন্ডেশনে  দিনাজপুরে সন্ধানী দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ ইউনিটের নব-নির্বাচিত কমিটি ও ইন্টার্নি চিকিৎসকদের এক সমাবেশ উপরোক্ত কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে ৫০০ শয্যা হাসপাতাল করেছে। সিটি স্ক্যান, এম.আর.আই, বার্ণ ইউনিট, আইসিইউ, আলতাসনো গ্রাম, কিউনী ডাইলোসিস, প্যাথলজি বিভাগসহ সকল ধরণের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করা হয়েছে। বর্তমান শেখ হাসিনার সরকার স্বাস্থ্য সেবায় প্রচুর বরাদ্দ দিয়েছে। অতীতের কোন সরকারই স্বাস্থ্য সেবায় এতো গুরুত্ব দেয়নি। প্রতিটি জেলায় মেডিকেল কলেজ ও উপজেলায় পুর্ণাঙ্গ হাসপাতালের অঙ্গীকার এ হাসপাতালের। সন্ধানী দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ ইউনিটের নব-নির্বাচিত কমিটির সভাপতি ইশরাক শাহারিয়ার এঞ্জেলের সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক সৌরভ ঘোষের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, সন্ধানীর কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা ডাঃ শরীফ, ডাঃ জেমস, দিমেক ছাত্রলীগের সভাপতি ডাঃ আশফাকুর রহমান তুষার, দিমেক আইডি’র এর সাধারন সম্পাদক ডাঃ ইব্রাহিম খলিল, সন্ধানীর কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি ওয়াসিয়া ইসলাম অন্যনা, দিমেক মেডিসিন ক্লাবের সভাপতি ইফাজ প্রমুখ। সমাবেশ শেষে সন্ধানীর কেন্দ্রীয় পরিষদের সভাপতি ডাঃ জাহারুল হোসেন খান আয়ানের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা জানানো হয়।