(দিনাজপুর২৪.কম) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে প্রাথমিক যাচাই-বাছাইয়ে সহসভাপতি (ভিপি) পদে ২০ জন ও সাধারণ সম্পাদক (জিএস) পদে ১২ প্রার্থীকে যোগ্য ঘোষণা করা হয়েছে। এ ছাড়া অন্যান্য পদে মোট ২৯৪ প্রার্থী বাছাইয়ে টিকেছেন। আর মনোনয়নপত্রে তথ্যের অসম্পূর্ণতা ও ভোটার তালিকায় নাম না আসায় সাতজনের প্রার্থিতা সাময়িকভাবে বাতিল করা হয়েছে। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় ডাকসুর ওয়েবসাইটে এ তালিকা প্রকাশ করা হয়।
কেন্দ্রীয় সংসদে ভিপি-জিএস ছাড়া অন্য পদগুলোর মধ্যে এজিএস পদে ১৩, স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সম্পাদক পদে ১১, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক ৯, কমনরুম ও ক্যাফেটারিয়া বিষয়ক সম্পাদক ৯, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ১৩, সাহিত্য সম্পাদক ৮, সাংস্কৃতিক সম্পাদক ১২, ক্রীড়া সম্পাদক ১১, ছাত্র পরিবহন সম্পাদক ১০, সমাজসেবা বিষয়ক সম্পাদক ১৫ ও সদস্য পদে ৮৮ জনকে নির্বাচনে যোগ্য ঘোষণা করে প্রাথমিক প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এদিকে মনোনয়নপত্রে তথ্যের অসম্পূর্ণতা ও ভোটার তালিকায় নাম না আসায় ডাকসুর ভিপি পদে ১, জিএস পদে ২ ও সদস্য পদে ৪ জনের প্রার্থিতা সাময়িকভাবে বাতিল করা হয়েছে।
এখন পর্যন্ত ডাকসু নির্বাচনে ছোট-বড় মিলিয়ে মোট ১০টি প্যানেলের অংশ গ্রহণের কথা জানা গেছে। এর মধ্যে রয়েছে- ছাত্রলীগ, ছাত্রদল, বামজোট, কোটা সংস্কার আন্দোলন, জাসদ ছাত্রলীগ, বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রী, ছাত্র মৈত্রী জোট, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন, স্বতন্ত্র জোট ও স্বাধিকার আন্দোলন। এ ছাড়া স্বতন্ত্রভাবে অনেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। তারাও সেগুলো গত মঙ্গলবার জমা দিয়েছেন।ডাকসুর তফসিল অনুযায়ী, ১১ মার্চ সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ করা হবে। সংশ্নিষ্ট হলের ভোটার (আবাসিক ও অনাবাসিক) হলের ভোটকেন্দ্রে বৈধ পরিচয়পত্র দেখিয়ে ভোট দিতে পারবেন।
গত ১৯ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মনোনয়নপত্র সংগ্রহ শেষে ২৬ ফেব্রুয়ারি তা জমা দেন প্রার্থীরা। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে গতকাল হলের নোটিশ বোর্ড ও ডাকসুর ওয়েবসাইটে প্রাথমিক প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। প্রকাশিত তালিকার বিষয়ে কোনো প্রার্থীর আপত্তি থাকলে আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার মধ্যে সভাপতির কাছে লিখিতভাবে অবহিত করতে হবে। ২ মার্চ দুপুর ১টা পর্যন্ত লিখিত ও স্বাক্ষরকৃত আবেদনসহ হলে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে ব্যক্তিগতভাবে উপস্থিত হয়ে যে কোনো প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করতে পারবেন। ৩ মার্চ বিকেল ৪টায় প্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা হলের নোটিশ বোর্ড ও ডাকসুর ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।
শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রার্থীদের শুভেচ্ছ বিনিময় :শিক্ষার্থীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা। গতকাল শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন দাবির কথা শুনেছেন ছাত্রলীগ প্যানেলে ডাকসুর সহসভাপতি (ভিপি) পদপ্রার্থী রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। ক্যাম্পাসের কলা ভবন, কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার এলাকায় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন তিনি।
সাংবাদিকদের শোভন বলেন, ২ মার্চের পর থেকে আনুষ্ঠানিক প্রচার শুরু করব। এখন আমরা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলছি, তাদের মতামত নিচ্ছি। তারা কেমন বিশ্ববিদ্যালয় চায়, সেটা জানতে চাচ্ছি। আমরা সবাই মিলে স্বপ্নের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গড়তে চাই। জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের প্রার্থীরাও এদিন শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন। গতকাল দুপুর ১টার দিকে ক্যাম্পাসের মধুর ক্যান্টিন, কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার, কলা ভবন, ক্যাম্পাস শ্যাডো, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ ও রেজিস্ট্রার ভবন এলাকায় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন তারা। এ বিষয়ে ছাত্রদলের ডাকসু ভিপি পদপ্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়ে ছাত্রদলের অবস্থান তুলে ধরেছি। ভালো সাড়া পাচ্ছি।
প্রগতিশীল ছাত্রজোটের ডাকসু ভিপি পদপ্রার্থী লিটন নন্দী বলেন, আমরা দলগত দাবি নিয়ে শিক্ষার্থীদের কাছে যাচ্ছি। ইতিবাচক সাড়া পাচ্ছি। এদিকে, প্রাথমিক বাছাইয়ে প্রার্থিতা বাতিল হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্বতন্ত্র জিএস প্রার্থী আসিফুর রহমান। তিনি অভিযোগ করেছেন, সব বিধি মেনে মনোনয়নপত্র দাখিল করা সত্ত্বেও জিএস পদের প্রাথমিক প্রার্থী তালিকা থেকে তাকে বাদ দেওয়া হয়েছে। প্রশাসনের এ সিদ্ধান্ত একেবারেই উদ্দেশ্যপ্রণোদিত, শিশুসুলভ ও হাস্যকর।
তবে তালিকার বিষয়ে কোনো আপত্তি থাকলে আজকের মধ্যে লিখিতভাবে হল প্রশাসনকে জানানো যাবে। লিখিত অভিযোগ যাচাই-বাছাই শেষে আগামী ৩ মার্চ চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করবে বিশ্ববিদ্যালয়। এরপর শুরু হবে প্যানেলগুলোর আনুষ্ঠানিক প্রচার।-ডেস্ক