ছবি : সংগৃহীত

(দিনাজপুর২৪.কম) মুন্সিগঞ্জে চাঁদা না দেওয়ায় ঠিকাদারকে লাথি মেরে হত্যার হুমকি দিয়েছে বলে এক ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত ওই ছাত্রলীগ নেতার নাম রুবেল আহমেদ। তিনি জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, চাঁদা না পেয়ে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে সদর উপজেলার মুক্তারপুর এলাকায় ঠিকাদার মো. নাছির মোল্লাকে পিস্তল দেখিয়ে হত্যার হুমকি দিয়ে লাথি-ঘুষি মারেন রুবেল। অভিযোগকারী ঠিকাদার বলেন, ‘বাংলাদেশে কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএডিসি) সার পরিবহনের জন্য ধলেশ্বরী নদীতে ফেরিঘাট তৈরির কাজ থেকে ছাত্রলীগ নেতা রুবেল চাঁদা দাবি করেছিলেন। গতকাল দুপুরে রুবেলসহ ১০-১২ জন মোটরসাইকেলে করে মুক্তারপুর এসে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। একপর্যায়ে তিনি পিস্তল বের করে ফাঁকা গুলি করেন ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটান। এসময় স্থানীয় বিভিন্ন কারখানার শ্রমিকরা টায়ারে আগুন দিয়ে তাদেরকে চলে যেতে বাধ্য করেন। চলে যাওয়ার আগে রুবেল ও ফারুক নামে একজন ছাত্রলীগ কর্মী আমাকে লাথি মারে। পুরো ঘটনাটি সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে।’ এ ব্যাপারে রুবেলের সঙ্গে মোবাইলে কয়েকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও সাড়া পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে মুন্সিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, গুলি ছোঁড়ার সত্যতা পুলিশ পায়নি। তবে বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটার কথা জানা গেছে। পরিস্থিতি এখন শান্ত আছে। ঠিকাদার নাছির মোল্লা এখনো অভিযোগ দেননি। অভিযোগ অনুযায়ী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা। -সূত্র : আমাদের সময়