(দিনাজপুর২৪.কম) গত জুলাইয়ে ইংল্যান্ড সফরে দ্বিতীয় টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকা দল থেকে বাদ পড়েছিলেন জেপি ডুমিনি। সাদা পোশাকে নিজের ভাগ্যটা তখনই টের পেয়ে যান প্রোটিয়া এ বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে মনোযোগী হতে তাই টেস্ট ক্রিকেট ছাড়লেন ৩৩ বছর বয়সী ডুমিনি। দক্ষিণ আফ্রিকার সংবাদমাধ্যম ‘ইনডিপেনডেন্ট মিডিয়া’কে সিদ্ধান্তটা জানিয়েছেন ডুমিনি নিজেই।

৪৬ টেস্টে ৩২.৮৫ গড়ে ২১০৩ রান করা এ স্টাইলিশ ব্যাটসম্যান শুক্রবার সংবাদমাধ্যমটিকে বলেছেন, ‘অনেক দিন ধরে বিচার-বিবেচনার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া হিসেবে আমি টেস্ট ও প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট থেকে অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। গত ১৬ বছরে দেশের হয়ে ৪৬টি টেস্ট ও কেপ কোবরার হয়ে ১০৮টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ দারুণ উপভোগ করেছি এবং এটা ছিল আমার জন্য সম্মানের।’

ডুমিনির ওয়ানডে অভিষেক ২০০৪ সালে। এর চার বছর পর সুযোগ পেয়েছিলেন প্রোটিয়া টেস্ট দলে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সেই সিরিজে অভিষেক টেস্টে হাফ সেঞ্চুরির পর দ্বিতীয় টেস্টে তুলে নিয়েছিলেন সেঞ্চুরি। টেস্টে ৬ সেঞ্চুরি ও ৮ হাফ সেঞ্চুরি পাওয়া ডুমিনির সাম্প্রতিক টেস্ট ফর্ম অবশ্য মোটেও ভালো নয়। শেষ আট টেস্টে ১৭.২৮ গড়ে মাত্র ১২১ রান করেছেন তিনি।

ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি চালিয়ে যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করে ডুমিনি বলেন, ‘এটা নিশ্চিত যে আমার ক্যারিয়ার শেষ হওয়া থেকে এখনো অনেক দূরে। ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা (সিএসএ), সতীর্থ, বন্ধুবান্ধব ও পরিবারের সমর্থন নিয়ে আশা করছি আমাকে খেলা চালিয়ে যাওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে। যে খেলাটাকে এত ভালোবাসি, সেখানে নিজের সর্বোচ্চটুকু নিংড়ে দেওয়ার সুযোগ পাব।’ -ডেস্ক
সূত্র: আইওএল, সিএ।