(দিনাজপুর২৪.কম) মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় ঢাকা মহানগর হাকিম মেহের নিগার সূচনার আদালতে লাক্সতারকা ঈশানা আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। এরপর আদালত পাঁচ হাজার টাকার বন্ড ও এক জনের জিম্মায় তার জামিন মঞ্জুর করেন। প্রযোজক ও অভিনেতা মারুফ খান প্রেমের দায়ের করা মামলায় মঙ্গলবার আদালত থেকে জামিন পান তিনি। এর আগে গত ৩ ফেব্রুয়ারি মানহানির অভিযোগে ঢাকার সিএমএম আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন প্রেম। ওইদিন আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে ঈশানাকে ২২ মার্চ আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করেন। কিন্তু ঈশানা আদালতে হাজির না হওয়ায় তার বিরুদ্ধে এ পরোয়ানা জারি হয়। এছাড়া গত ৩ মার্চ উত্তরা থানায় আইসিটি অ্যাক্টে ঈশানার বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা করেন প্রেম। মামলা নম্বর: ০২, তাং-০৩/০৩/২০১৬ ধারাঃ আইসিটি অ্যাক্ট ৫৭। এই মামলাতেও জামিন পেয়েছেন ঈশানা। জামিন পাওয়ার পর ঈশানা মানবজমিনকে বলেন, আজ আদালতে গিয়ে জামিন নিয়েছি। মারুফের দায়ের করা দুটো মামলাতেই জামিন দেয়া হয়েছে। আসলে আমার ভুলের জন্য এর আগে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়েছিল। ওইদিন যদি আদালতে হাজিরা দিতাম তাহলে হয়তো ঝামেলা পোহাতে হতো না। যাই হোক, এখন খুব ভালো লাগছে। মনে হচ্ছে মাথা থেকে একটা বোঝা নামলো। আমি চাই সুন্দরভাবে বিষয়টির মিমাংসা হোক। অন্যদিকে মামলা দায়ের করা প্রযোজক প্রেম বলেন, ২৭ এপ্রিল ঈশানাকে আবার আদালতে আসতে হবে। আদালত তাকে নতুন এই তারিখ দিয়েছেন। আর আমার জানামতে, আইসিটি মামলায় উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিতে হয়। ফোনে হুমকি পাওয়ার কারণে আমি আরকেটি মামলা করেছি। তবে কোন থানায় করেছি তা তদন্তের স্বার্থে জানাতে চাচ্ছি না। সময় হলেই তা সকলে জানতে পারবেন। জানা যায়, গত ৩ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে বাদী নাট্য প্রযোজক মারুফ খান প্রেম ঈশানার বিরুদ্ধে এক কোটি টাকার মানহানি মামলা দায়ের করেন। মামলার অভিযোগে জানা যায়, ঈশানা গত ৭ জানুয়ারি উত্তরার নীলাঞ্জনা শুটিং স্পটে মেগা ধারাবাহিক ‘সহযাত্রী’ নাটকের শুটিং করছিলেন। এক পর্যায়ে মেকআপ রুমে সহ-শিল্পীসহ কয়েকজন তাকে নিয়ে বিভিন্ন অশালীন কথাবার্তা বলেন, যা উপস্থিত অন্য একজন সহশিল্পী নিজের মোবাইল ফোনে রেকর্ড করেন। রেকর্ডকৃত আলাপচারিতা শোনার পর ঈশানা উত্তরা (পশ্চিম) থানার পুলিশ নিয়ে শুটিং স্পটে হাজির হন। এরপর পুলিশের একজন কর্মকর্তার উপস্থিতিতে প্রাথমিকভাবে বিষয়টির সুরাহা হয়। কিন্তু পরে ঈশানা শুটিংয়ের শিডিউল ফাঁসানো ও বাদীর অনুপস্থিতিতে শুটিং সেটে তাকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করায় এবং ফেসবুকে এ বিষয়ে মানহানিকর স্ট্যাটাস দেওয়ায় এ মামলাটি দায়ের করেন।-ডেস্ক