(দিনাজপুর২৪.কম) আসন্ন ওয়ানডে বিশ্বকাপের আগে আয়ারল্যান্ড সফরে যাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। সেখানে তারা ৫ মে থেকে ১৭ মে পর্যন্ত ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে। সিরিজের তৃতীয় দল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সিরিজের প্রথম ম্যাচে স্বাগতিক আয়ারল্যান্ডের মুখোমুখি হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ডাবল রাউন্ড রবিন পদ্ধতিতে একে অন্যের মুখোমুখি তিন দল এবং ১৭ মে ফাইনাল খেলবে সেরা দুই দল। বিশ্বকাপের আগে এটিই বাংলাদেশের শেষ ওয়ানডে সিরিজ। ফলে ক্রিকেট মহাযজ্ঞের আগে এটাই প্রস্তুতি নেওয়ার শেষ সুযোগ। আয়ারল্যান্ড সফর শেষে বিশ্বকাপে অংশ নিতে ইংল্যান্ডে হাজির হবেন মাশরাফি-তামিম-সাকিবরা। ৩০ মে থেকে মাঠে গড়াবে বিশ্বকাপ। তবে বাংলাদেশের অভিযান শুরু হবে ২ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে। ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রতিটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ডাবলিনের তিন মাঠে। উইন্ডিজ ও আয়ারল্যান্ড তাদের সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজে ইংল্যান্ড এবং আফগানিস্তানের বিপক্ষে ড্র করতে সক্ষম হয়েছে। অন্যদিকে নিউজিল্যান্ড সফর থেকে শুন্য হাতে ফিরেছে বাংলাদেশ। ফলে বিশ্বকাপের আগে নিজেদের ঝালিয়ে নিয়ে এই সিরিজকেই পাখির চোখ করতে চাইবে টাইগাররা।এদিকে সিরিজ চলাকালীন সময়ে আইপিএল খেলবেন সাকিব আল হাসান। ফলে তাকে এই সিরিজে না পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি। যদি কোনো কারণে তার দল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ প্লে-অফ খেলতে ব্যর্থ হয় তাহলে হয়তো তাকে পাওয়া যাবে। একই কারণে সিরিজে থাকছেন না উইন্ডিজের আন্দ্রে রাসেল, ক্রিস গেইল, শিমরন হেটমায়ার, ওশানে টমাস, নিকোলাস পুরান, এভিন লুইস এবং কার্লোস ব্র্যাথওয়েট। তাদের জায়গায় নতুনদের সুযোগ দেবে উইন্ডিজ। -ডেস্ক