(দিনাজপুর ২৪.কম) বাংলাদেশে বিয়ের ক্ষেত্রে নারীদের সম্মতি খুব কমই নেয়া হয় বলে অভিযোগ।বাংলাদেশের ঝালকাঠি জেলায় ‘জোর করে বিয়ে’ দেয়ার জন্যে মায়ের বিরুদ্ধে মামলা করেছে তার কিশোরী মেয়ে।ঘটনার কেন্দ্রে থাকা ১৫ বছর বয়সী মেয়েটি জানিয়েছে, “জুলাই মাসে আমার মা একদিন জানালো আমার একজনের সাথে বিয়ে হয়ে গেছে। বিয়ে যে হয়ে গেছে সেটি আমি বুঝতেই পারিনি”
মেয়েটির বক্তব্য অনুযায়ী এর পর তাকে খুলনায় নিয়ে গিয়ে একটি ঘরে তারই এলাকার এক পুরুষের সাথে তাকে আটকে রাখা হয়।সেখানে তাকে জোর করে সহবাসে বাধ্য করা হয়। মারধোর করা হয়।এর পর সে পালাতে সক্ষম হয় এবং ঝালকাঠির এক সাংবাদিকের সহায়তায় থানায় মা ও তার কথিত স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করে সে।ঘটনাটি ঘটেছে ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর উপজেলায়।
রাজাপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ মুনির-উল-গিয়াস বিবিসিকে জানিয়েছেন, “তদন্তের পর প্রাথমিকভাবে আমরা এ ঘটনার সত্যতা পেয়েছি। এখানে বিয়ের ধর্মীয় বিধিবিধান মানা হয়নি। এটিকে আমরা জোর করে বিয়ে বলতে চাইনা। এক্ষেত্রে জোর করে সহবাসে বাধ্য করা হয়েছে বলা যায়”তিনি জানান, এ ঘটনায় রোববার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা হয়েছে।
অভিযুক্তদের ধরতে অভিযান চালানো হয়েছে বলে জানানা মি গিয়াস।
সূত্র: বিবিসি বাংলা।