(দিনাজপুর২৪.কম) পাকিস্তানের ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকে চিকিৎসাজনিত কারণে মুক্তি দিতে একটি আপিল শুনেছেন লাহোরের হাইকোর্ট। আপিলটি করেছেন পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজের বর্তমান সভাপতি শাহবাজ শরিফ।

শুনানিতে আইনজীবী আস্তার আউসফ বলেন, নওয়াজের শারীরিক অবস্থা মারাত্মকভাবে খারাপ হয়ে গেছে। আর চিকিৎসকরা বলছেন, তার শরীরের প্লাটিলেট কমে যাচ্ছে।

ন্যাশনাল জবাবদিহি ব্যুরোর হাজতে আটক রয়েছেন পাকিস্তানের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ। বিচারপতি বাকার নাজাফির নেতৃত্বাধীন দুই সদস্যের বেঞ্চে এই আপিলি শুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

দুর্নীতিবিরোধী প্রতিষ্ঠানটির কৌঁসুলি আদালতকে বলেন, নওয়াজ শরিফসহ প্রতিটি মানুষের জীবন মূল্যবান। সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর অবস্থা চিকিৎসাযোগ্য।

তিন দিনের চেষ্টার পর ছয় সদস্যের একটি চিকিৎসক বোর্ড বৃহ্স্পতিবার নওয়াজ শরিফের স্বাস্থ্যের অবনতির একটি কারণ শনাক্ত করতে পেরেছে। যেটাকে একিউট ইমিউন থ্রমবোসিটোপেনিক পুরপুরা বা আইটিপি বলে। এতে রোগপ্রতিরোধ ব্যবস্থা প্লাটিলেট ধ্বংস করে দিচ্ছে বলে জানা গেছে।

তবে কয়েকদিনের মধ্যেই তার অবস্থার উন্নতি ঘটবে বলে চিকিৎসকরা আশা প্রকাশ করেছেন। তার রোগ চিকিৎসাযোগ্য বলেও জানিয়েছেন তারা।

চিকিৎসক দলের প্রধান ডা. আয়াজ বলেন, নওয়াজের প্লাটিলেটের সংখ্যা ক্রমাগত কমে যাচ্ছে। তিনি ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন কিনা তা জানতে তার শরীর পরীক্ষা করা উচিত।

তিনি আরও বলেন, প্রতিদিন তার শরীরে আমরা প্লাটিলেট দিচ্ছি। কিন্তু প্রতিদিন তা ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। কোনো কিছু নওয়াজের প্লাটিলেট ধ্বংস করে দিচ্ছে। নওয়াজের চিকিৎসার জন্য তার শরীরে স্টেরয়েড দিতে হবে। -ডেস্ক