(দিনাজপুর২৪.কম) লক্ষ্মীপুরে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় আগামী নির্বাচনের জন্য নৌকায় ভোট চাইলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, বিএনপি-জামায়াতকে ভোট দিলে দেশে সন্ত্রাস হয়। আর আওয়ামী লীগকে ভোট দিলে উন্নয়ন হয়। ইতিমধ্যে এটি প্রমাণিত হয়েছে। লক্ষ্মীপুরের মানুষ অতীতে জামাত-বিএনপির অত্যাচার-নির্যাতনের চিত্র দেখেছে। তখন এখানে উন্নয়ন হয়নি। উন্নয়ন যা হচ্ছে তা আওয়ামী লীগের আমলে। মঙ্গলবার বিকালে লক্ষ্মীপুর স্টেডিয়ামে আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী জনসভায় প্রায় এক ঘণ্টা বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, আমি এদেশের মানুষের ভাগ্যের উন্নয়নে কাজ করছি। এদেশের মানুষের জন্য আমি আমার জীবন উৎসর্গ করেছি। তিনি বলেন, আমার আর কোন চাওয়া পাওয়া নেই। এই দেশের মানুষের জন্য আমার বাবা, মা, ভাই জীবন দিয়েছে। যদি প্রয়োজন হয় বাবার মতো নিজের জীবন দিয়ে হলেও আমি বাংলার মানুষের উন্নয়ন করে যাব। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সবাইকে সচেতন হওয়ার আহবান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি মসজিদের ইমাম, শিক্ষক, পেশাজীবীসহ প্রত্যেককে বলবো, আপনারা এই সন্ত্রাস এবং জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ভুমিকা রাখুন। জঙ্গিবাদ ইসলামে গ্রহণযোগ্য নয়। কেউ মানুষ হত্যা করে বেহেশতে যেতে পারবে না। মানুষ মারলে দোজখে যেতে হবে।
উপস্থিত নেতাকর্মী ও জনসাধারণের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনারা আওয়ামী লীগের ওপর ভরসা রাখবেন। আগামীতে যতো নির্বাচন আসে তাতে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে বিজয়ী করে উন্নয়ন অব্যাহত রাখার সুযোগ দেবেন। এটিই আমি চাই। এসময় প্রধানমন্ত্রী উপস্থিত জনসাধারণকে হাত তুলে নৌকার পক্ষে সমর্থন জানান দেয়ার কথা বললে সবাই হাত তুলে নৌকার স্লোগান দেন।
জনসভায় অংশ নেয়ার আগে প্রধানমন্ত্রী ২৭টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক টিংকুর সভাপতিত্বে দুপুর সাড়ে ১২ টায় জনসভা আনুষ্ঠানিভাবে শুরু হয়। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নূর উদ্দিন চৌধুরী নয়নের সঞ্চলনায় সভায় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হম শামীম, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, লক্ষ্মীপুর ৩ আসনের এমপি একেএম শাহজাহান কামাল, পৌর মেয়র আবুতাদেরসহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা বক্তব্য রাখেন।  -ডেস্ক