(দিনাজপুর২৪.কম) বলিউডের অভিনেত্রী জিয়া খান হত্যা মামলায় গত ৩০ জানুয়ারি সুরজ পাঞ্চোলির নামে অভিযোগ গঠন করেছেন মুম্বাইয়ের একটি দায়রা আদালত। সুরজ পাঞ্চোলি এই হত্যা মামলার আসামি, তিনি তারকা দম্পতি আদিত্য পাঞ্চোলি ও জরিনা ওয়াহাবের ছেলে। সুরজ নিজেও বলিউডের ছবিতে অভিনয় করেন।

জিয়া খান ছিলেন সুরজ পাঞ্চোলির প্রেমিকা। আত্মহত্যার প্ররোচনার দায়ে জিয়ার মা রাবিয়া খান সুরজের নামে মামলা করেন। গত বুধবার শুনানি শুরু হয়েছে এই মামলার। বৃহস্পতিবার শুনানিতে মুম্বাই কোর্টে সুরজ পাঞ্চোলি উপস্থিত ছিলেন।

২০১৩ সালের ৩ জুন নিজের বাসায় জিয়ার ঝুলন্ত লাশ পাওয়া যায়। তার মৃত্যু-রহস্যের জট এখনো খোলেনি। সুইসাইড নোট, আরও কিছু প্রমাণের ভিত্তিতে কেউ কেউ মনে করছেন প্রেমের সম্পর্কের জের ধরেই আত্মহত্যা করেছেন জিয়া।

এই অভিনেত্রীর মায়ের দাবি, জিয়াকে খুন করা হয়েছে। মৃত্যুর দিন সকালেই জিয়া সুরজের বাসা থেকে নিজের বাসায় আসেন বলে অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রাথমিক পর্যায়ে মুম্বাইয়ের জুহু পুলিশ উপযুক্ত তথ্য-প্রমাণের অভাবে জিয়া খান হত্যা মামলা গ্রহণ করতে চায়নি। পরে ভারতীয় দণ্ডবিধি অনুযায়ী আত্মহত্যায় প্ররোচিত করার মামলায় একই বছরের ১০ জুন সুরজকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর মুম্বাইয়ের উচ্চ আদালতের রায়ে জামিন পান এই নায়ক।

অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে ‘নিঃশব্দ’ ছবিতে অভিনয় করে আলোচনায় এসেছিলেন জিয়া খান। আমির খানের সঙ্গে ‘গজনি’তেও অভিনয় করেছেন। অন্যদিকে ২০১৫ সালে ‘হিরো’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক হয় সুরজ পাঞ্চোলির। -ডেস্ক