(দিনাজপুর২৪.কম) বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে অগ্রাধিকারমূলক বাজার সুবিধা (জিএসপি) না দিলেও বাংলাদেশের কোনো ক্ষতি হবে না। তিনি বলেন, জিএসপি পাওয়ার জন্য আমি কোনো উদ্যোগ নিতে রাজি না। আমরা আমাদের শর্ত পূরণ করেছি, আমাদের আর কিছু করার নেই। আজ মঙ্গলবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে তিনি বাংলাদেশে নিযুক্ত স্লোভেনিয়ার রাষ্ট্রদূত দারজা বাবদাজ কুরেতের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।
বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, রাজনৈতিক কারণ ছাড়া, রাজনৈতিভাবে বাংলাদেশকে বিবেচনা করা ছাড়া এটা (জিএসপি) না পাওয়ার কোন কারণ নেই। যেখানে বারাক ওবামা নাইরোবিতে বাংলাদেশের প্রশংসা করেছেন, সেখানে সামান্য জিএসপি সুবিধা না পাওয়ার কোন কারণ নেই। তবে এতে বাংলাদেশের কোন ক্ষতি হবে না। জিএসপি ফিরে পেতে ট্রেড ইউনিয়ন বাধা কি না প্রশ্নে করলে তোফায়েল আহম্মেদ বলেন, আমি অনেক কথা বলতে চাই না। তৈরি পোশাককে জিএসপি দেয় না, মার্কেট এক্সেস দেয় না। কিন্তু তৈরি পোশাক খাতের শ্রমিকদের নিয়ে তারা কথা বলে। তবে তিনি বলেন, আমরা আশা করব, আমাদের সঙ্গে যেহেতু টিকফা আছে, এর আওতায় তারা স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করবে।  প্রসঙ্গত গত ২৯ জুলাই থেকে বাংলাদেশ ছাড়া বিশ্বের ১২২টি দেশ ও অঞ্চলের জন্য জিএসপি পুনর্বহাল করেছে। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ১২২টি দেশের পণ্যে জিএসপি নবায়ন করা হলেও সেই তালিকায় বাংলাদেশের নাম নেই। তাজরীন ফ্যাশনসে অগ্নিকাণ্ড ও রানা প্লাজা ধসে সহস্রাধিক শ্রমিকের মৃত্যুর প্রেক্ষাপটে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী সংগঠন ‘আমেরিকান অর্গানাইজেশন অব লেবার-কংগ্রেস ফর ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন (এএফএল-সিআইও) এর আবেদনে ২০১৩ সালের ২৭ জুন বাংলাদেশের জিএসপি সুবিধা স্থগিত করা হয়। -ডেস্ক