(দিনাজপুর২৪.কম) ‘‘শিশুদের কৃমিনাশক ঔষধ সেবন করান ঃ কৃমি মুক্ত বাংলাদেশ গড়–ন’’ প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে দিনাজপর জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম বলেছেন, যদি কোন শিশু কৃমি দ্বারা আক্রান্ত হয় তবে তার শারীরিক ও মানসিক বৃদ্ধি ঠিকমত হয়না। আর এই কৃমি এপেন্ডিসাইটিস ও আন্ত্রিক জটিলতাও করতে পারে, যার কারনে অপারেশনের প্রয়োজন হতে পারে, এমনকি অতিশয় কৃমির সংক্রমণ মৃত্যুর কারনও হতে পারে। আর এ জন্য সকল শিশুকে কৃমিনাশক ঔষধ খাওয়াতে হবে। পাশাপাশি সকলকে প্রতিদিন ৩টি করে নিয়মিত ভাবে নিমপাতা খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তোলার পরামর্শ দেন তিনি। অর্থাৎ তেতো খাওয়ার অভ্যাস করা। তিনি বলেন, আমি নিজেও খাই। আর এই নিয়মিত তেতো খাওয়ার অভ্যাস গড়তে পারলে, আমি মনে করি আমাদের দেহে কোন প্রকার রোগ সহজে বাসা বাধতে পারবে না।

২ এপ্রিল শনিবার সকালে দিনাজপুর সিভিল সার্জন এর আয়োজনে শহরের রাজবাটী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত ‘‘জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রন সপ্তাহ ২-৭ এপ্রিল ২০১৬ পালন’’ এর উদ্বোধনী আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় তিনি একজন ক্ষুদে ডাক্তারকে এই কৃমিনাশক ঔষধ খাওয়ান।
শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডা. অমলেন্দু বিশ^াস। তিনি বলেন, কৃমি মানুষের পেটে পরজীবি হিসাবে বাস করে এবং খাবারের পুষ্টিটুকু খেয়ে ফেলে। তাই মানুষ পুষ্টিহীনতায় ভোগে। কৃমি মানুষের পেট থেকে রক্ত শোষণ করে, যার কারনে কৃমি আক্রান্ত ব্যক্তির রক্ত শূন্যতা দেখা দেয়। এজন্য খালি পায়ে চলাফেরা না করা এবং পায়খানা ব্যবহারের সময় স্যান্ডেল পরা, হাতের নখ ছোট রাখা এবং সপ্তাহে ১ বার নখ কাটারও পরামর্শও দেন তিনি।

এসময় কৃমি নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমে শিশুদের অনুপ্রানিত করার জন্য পঞ্চম শ্রেনী থেকে সর্বমোট ১৫ জন ছাত্র-ছাত্রীর সমন্বয়ে একটি ‘‘ক্ষুদে ডাক্তার’’ টিম গঠন করানো হয়। ১ম থেকে ৫ম শ্রেনীতে ৩ জন করে এই ক্ষুদে ডাক্তাররা শিশুদের কৃমিনাশক ঔষধ সেবনের দায়িত্ব পালন করবেন। আর একজন শিক্ষক/শিক্ষিকা এই টীমকে পরিচালনা করবেন বলে অতিথিবৃন্দ জানান।
অনুষ্ঠানে স্কুল পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি সুশান্ত নারায়ন ঘোষ এর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি সিভিল সার্জন শামীম আরা নাজনীন, সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা অফিসার মোঃ সাইফুল ইসলাম, ইউ.আর.সি ইন্সট্রাকটর সুফিয়া পারভীন, সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ আশরাফুল করিম, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাবিনা ইয়াসমিন প্রমুখ। রাজবাটী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা শাহনাজ পারভীন এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন ৫ম শ্রেনীর ছাত্র কাওছার ও পবিত্র গীতা পাঠ করেন ৫ম শ্রেনীর ছাত্রী অতিথি।