(দিনাজপুর২৪.কম)  বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশনের অধীনে থাকা জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন বিভাগের সার্ভার বিকল হয়ে পড়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েছে অসংখ্য মানুষ। কর্মকর্তারা বলছেন সার্ভারে সংরক্ষিত আছে প্রায় ১১ কোটি ভোটারের তথ্য, ছবি ও বায়োমেট্রিক্স। সার্ভার বিকল থাকায় হারিয়ে যাওয়া বা ভুল সংশোধনে আসা ব্যক্তিরা কোনো সেবা পাচ্ছেন না। বিবিসি তাদের বাংলা সার্বিসে এই খবরটি প্রকাশ করেছে।

তারা অবশ্য বলছেন ইতোমধ্যেই সার্ভার সচল হতে শুরু করেছে এবং বুধবারের মধ্যেই সেটি সম্পূর্ণ সচল হয়ে উঠবে বলে আশা করছেন তারা।

জাতীয় পরিচয়পত্র কেনো গুরুত্বপূর্ণ

বাংলাদেশের ব্যাংক, বীমা, টেলিকমসহ সেবা খাতের অনেক প্রতিষ্ঠানই গ্রাহকের পরিচিত নিশ্চিত করতে জাতীয় পরিচয়পত্রের ওপর নির্ভরশীল।

গ্রাহকের দেয়া তথ্য তারা নির্বাচন কমিশনে সার্ভারে সংরক্ষিত তথ্যের সাথে মিলিয়ে দেখে। জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগের পরিচালক ও নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম সচিব মো: আব্দুল বাতেন এ সুযোগ পেতে ১০৩ টি প্রতিষ্ঠান কমিশনের সাথে আনুষ্ঠানিক চুক্তি করেছে।

এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রাজস্ব বোর্ড, পাসপোর্ট অধিদপ্তর, বাংলাদেশ ব্যাংক, র‍্যাব, পুলিশ সহ আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীও রয়েছে।

কবে থেকে অচল সার্ভার

কর্মকর্তারা বলছেন গত ১০ই জানুয়ারি থেকে সার্ভার ডাউন হয়ে থাকায় সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছে যাদের পরিচয়পত্র হারিয়েছে কিংবা ভুল সংশোধনের প্রয়োজন দেখা দিয়েছে, তারা।

প্রতিদিন গড়ে এই দুই ধরণের অন্তত পাঁচ হাজার আবেদন জমা পড়ে সংশ্লিষ্ট অফিসে।

এর পাশাপাশি নতুন ভোটার নিবন্ধন কার্যক্রম চলছে সেটির কাজও এখন বিঘ্নিত হচ্ছে।

অচল হওয়ার কারণ কি?

জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগের পরিচালক ও নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম সচিব মো: আব্দুল বাতেন বলছেন সার্ভারটি সচল রাখার জন্য গুরুত্বপূর্ণর বিষয়গুলোর একটি হলো ওরাকল সার্ভিস।

সেটিতে সমস্যা হওয়ার কারণেই এ সংকট তৈরি হয়েছে বলে জানান তিনি।

‘ওরাকল কর্তৃপক্ষ আপ্রাণ সহযোগিতা দিয়ে সার্ভারটি আবারো সচল করে তুলেছেন। কালকের মধ্যেই এটি স্বাভাবিক হয়ে আসবে।’

প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ কি বলছেন?

প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ সুমন আহমেদ সাবির বলছেন দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্যভাণ্ডারের এমন বিকল হয়ে পড়াটা খুবই অগ্রহণযোগ্য।

‘ব্যাকআপ বিভিন্ন লেভেলে কার্যকর থাকা উচিত। কারণ যে কোনো বিপর্যয় হতে পারে। আগুন, ভূমিকম্পে ক্ষতি হতে পারে। তাতে করে সেবাই বন্ধ হয়ে যাবে, তার সুযোগ নেই।’

তার মতে নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে যে কোনো পরিস্থিতিতে জাতীয় পরিচয়পত্রের সার্ভার সচল রাখতে আরও কার্যকর ও সমন্বিত পদক্ষেপের সুযোগ রয়েছে যেটি সংশ্লিষ্টরা চাইলেই নিশ্চিত করতে পারেন। -ডেস্ক