(দিনাজপুর২৪.কম) ‘বাঙালি জাতি আজ গভীর শোক ও শ্রদ্ধায় তার শ্রেষ্ঠ সন্তানকে স্মরণ করছে। জাতির পিতা যে সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন, আমাদের দায়িত্ব হবে সেই লক্ষ্যে কাজ করে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করা। তাহলেই তাঁর বিদেহী আত্মা শান্তি পাবে।’

আজ বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) সকালে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সুপ্রিম কোর্ট আয়োজিত ‘স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি’ উদ্বোধন করে এসব কথা বলেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘আজ শোকাবহ ১৫ অগাস্ট, জাতীয় শোক দিবস। ইতিহাসের বেদনাবিধুর ও বিভীষিকাময় এক দিন। ১৯৭৫ সালের এই দিনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করা হয়। তাঁর পরিবারের ছয় বছরের শিশু থেকে শুরু করে অন্তঃসত্ত্বা নারীও সেদিন ঘাতকের গুলি থেকে রেহাই পায়নি।’

পনের আগস্ট’র হত্যাকাণ্ডকে স্বাধীন বাংলাদেশের ইতিহাসে ‘সবচেয়ে অশ্রুভেজা ও কলঙ্কময়’ অধ্যায় হিসেবে বর্ণনা করে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘বাঙালি জাতি আজ গভীর শোক ও শ্রদ্ধায় তার শ্রেষ্ঠ সন্তানকে স্মরণ করছে।’ তিনি বলেন, ‘জাতির পিতা যে সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন, আমাদের দায়িত্ব হবে সেই লক্ষ্যে কাজ করে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করা। তাহলেই তার বিদেহী আত্মা শান্তি পাবে।’

সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি, আইনজীবী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধান বিচারপতি দিনব্যাপী রক্তদান কর্মসূচির উদ্বোধন ঘোষণা করেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রান্সফিউশন মেডিসিন বিভাগ সুপ্রিম কোর্টের এ রক্তদান কর্মসূচিতে সহযোগিতা দিচ্ছে।

জাতীয় শোক দিবসের সকালে ধানমণ্ডি ৩২ নম্বর সড়কে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের সামনে তাঁর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান প্রধান বিচারপতি। পরে তিনি যোগ দেন সুপ্রিম কোর্টের কর্মসূচিতে। সকাল সাড়ে ৯টায় সুপ্রিম কোর্টের উভয় বিভাগের বিচারপতি, আইনজীবী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন। -ডেস্ক