(দিনাজপুর২৪.কম) ২০১৫ সালে সই হওয়া প্যারিস জলবায়ু চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্র সরে যাওয়ার সিদ্ধান্তে বাংলাদেশ হতাশা প্রকাশ করেছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী এক বিবৃতিতে এ কথা জানিয়েছেন।
আজ মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘বর্তমান ও পরবর্তী প্রজন্মের জন্য সবুজ এবং নিরাপদ পৃথিবী তৈরির বৈশ্বিক প্রক্রিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের মতো বড় একটি দেশ বের হয়ে যাওয়া দুঃখজনক।’
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত।  বাংলাদেশ তার বন্ধু ও অংশীদারদের সঙ্গে মিলে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় সম্পদ আহরণ করবে।’
২০১৫ সালে যখন প্যারিস চুক্তি হয়, যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ছিলেন সামনের কাতারে। আর গত বছর নির্বাচনী প্রচারের শুরু থেকেই প্যারিস চুক্তির বিরোধিতা করে আসছিলেন ট্রাম্প। জলবায়ু চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সরে যাওয়ায় হতাশ বাংলাদেশ
তার ভাষ্য, এই চুক্তি যুক্তরাষ্ট্রের তেল ও কয়লা শিল্পকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে। ক্ষমতায় আসার পরপরই চুক্তি থেকে সরে আসার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। তার সেই প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের ঘোষণা আসে গত ২ জুন।
এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেন, এর মাধ্যমে ট্রাম্প প্রশাসন ‘ভবিষ্যৎকে প্রত্যাখ্যান’ করল।
যুক্তরাষ্ট্রের সরে যাওয়ার সিদ্ধান্তের পরও বাংলাদেশ প্যারিস চুক্তির প্রতি ‘অঙ্গীকারাবদ্ধ’ থাকবে বলে বিবৃতিতে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।
বিবৃতিতে বলা হয়, ‘অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক উৎসগুলোর মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর হুমকিগুলো চিহ্নিত করতে বাংলাদেশ বিশ্বজুড়ে মিত্র ও অংশীদারদের সঙ্গে সব প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবে। -ডেস্ক