এম.আহসান কবির, বার্তা সম্পাদক (দিনাজপুর২৪.কম) বাংলাদেশের অন্যতম সীমান্ত জেলা দিনাজপুর এর বিরল থানার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতিকে ধারাবাহিক জবাবদিহিতামুলক আইনশৃঙ্খলা প্রচেষ্ঠার অংশগ্রহণের উদ্যোগ নিয়েছেন থানার অফিসার্স ইনচার্জ গোলাম রসুল। দিনাজপুর২৪.কম’কে দেয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি জানান, বিরল থানার একটি পৌরসভা ও ১২টি ইউনিয়নে মোট ২ লক্ষ ৫৭ হাজার ৯২৫ জন মানুষের বসবাস। থানা হিসেবে এ বিশাল জনগোষ্ঠির আইনশৃঙ্খলার স্থিতিশীলতার মধ্যে দিয়ে আইনশৃঙ্খলার উন্নয়নেই বিরল পুলিশের এখন একমাত্র প্রচেষ্টা। জনগণ ও পুলিশের মধ্যে স্থিতিশীল সুসম্পর্ক বৃদ্ধি করে আইনশৃঙ্খলাকে উন্নয়নমুখী করাই এখন আমাদের একমাত্র প্রধান কাজ । তিনি এও জানান, এর মধ্যে যে, সমগ্র থানার আইনশৃঙ্খলায় তেমন কোন ব্যাঘাত ঘটেনি তা নয়। যা যা ঘটেছে তা রোধ করে ও তার পুনরাবৃত্তি না ঘটার প্রচেষ্টায় আমরা প্রাণপণ চেষ্টা করে যাচ্ছি। এই ধাবাহিকতায় আমার দায়িত্ব গ্রহণকালীন সময়ে (৩০ মে/১৮) থেকে এ পর্যন্ত ৬৪টি মাদক মামলা রুজু হয়েছে। মাদকের সাথে জড়িত ৮৮জনকে গ্রেফতার করে চালান দেয়া হয়েছে। বিভিন্ন মেয়াদে সাজা ও ওয়ারেন্ট সহ ১২টি আদালতের নির্দেশ তামিল করা হয়েছে। এ পর্যন্ত ১২০টি শালিশের মধ্যে ৯০টি সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করা হয়েছে। বাল্য বিবাহ মাদক ও ইভটিজিং সংক্রান্ত বিষয়ে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের সাথে গঠনমুলক কথোপকথনের মধ্যে দিয়ে গণসচেতনা সৃষ্টির প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। সেই সাথে আইনশৃঙ্খলাকামী সকল স্তরের মানুষের সাথে ভদ্রচিতভাবে ও সৌহাদ্যপূর্ণ আচরণকে বিরল থানা পুলিশের একান্ত বাহ্যিক উপস্থাপনের মাধ্যমে পুলিশ-জনগণের সম্পর্ক উন্নয়নকে বাধ্যতামুলক করা হয়েছে।