(দিনাজপুর২৪.কম) ২০১৬ সালে অনুষ্ঠেয় মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেট দল থেকে সাবেক মার্কিন ফার্স্টলেডি ও পররাষ্ট্র মন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন মনোনয়ন পাবেন, এটি প্রায় নিশ্চিত।তবে যুক্তরাষ্ট্রের দুই শীর্ষ গণমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল ও এনবিসি’র করা এক জনমত জরিপে দেখা গেছে, পরবর্তী মার্কিন প্রেসিডেন্টও হতে যাচ্ছেন তিনি।

জরিপে বেশিরভাগ মার্কিন ভোটার হিলারিকেই সমর্থন করছেন। সে হিসেবে তিনিই হতে যাচ্ছেন প্রথম মার্কিন নারী প্রেসিডেন্ট।

এ খবর দিয়েছে বার্তাসংস্থা পিটিআই। এ মাসের শুরুর দিকে নির্বাচনী প্রচারাভিযানের অংশ হিসেবে প্রথম জনসমাবেশ করেন হিলারি।

এর কয়েকদিন পরই ওই জরিপটি পরিচালিত হয়। জরিপে দেখা গেছে, ডেমোক্রেট দলের প্রাইমারি ভোটারদের তিন-চতুর্থাংশই ভোট দেবেন হিলারিকে।

অন্যদিকে প্রতিদ্বন্দ্বী বার্নি স্যান্ডার্স পেয়েছেন ডেমোক্রেট প্রাইমারি ভোটারদের মাত্র ১৫ শতাংশ ভোট। ৬৭ বছর বয়সী ক্লিনটন ডেমোক্রেট দল থেকে অভূতপূর্ব সমর্থন পাচ্ছেন।

দলটির মোট প্রাইমারি ভোটারদের ৯২ শতাংশ তাকে সমর্থন করবেন। মাত্র ৮ শতাংশ ভোটার দ্বিমত পোষণ করেছেন। শুধুমাত্র ডেমোক্রেট শিবিরেই নয়, সামগ্রিক জরিপ অনুযায়ী তিনিই হতে যাচ্ছেন পরবর্তী মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

প্রায় ১০০০ ডেমোক্রেট ও রিপাবলিকান ভোটারকে আগামী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী সমর্থনের বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়। এতে দেখা যায়, মোট ভোটারদের ৪৮ শতাংশই হিলারির পক্ষে।

৪০ শতাংশ সমর্থন করছেন রিপাবলিকান প্রার্থী ফ্লোরিডার অঙ্গরাজ্যের সাবেক গভর্নর জেব বুশকে। জেব বুশ আবার সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ এইচডব্লিউ বুশের ছেলে ও আরেক সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশের ভাই।

আবার হিলারি বনাম ফ্লোরিডার রিপাবলিকান দলীয় সিনেটর ও প্রেসিডেন্ট পদে সমর্থনপ্রত্যাশী মার্কো রুবিওর লড়াইয়ে দেখা গেছে, ৫০ শতাংশ ভোটারই হিলারিকে ভোট দেবেন।

৪০ শতাংশ ভোট পাবেন মার্কো রুবিও। আরেক রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী উইসকোনসিনের গভর্নর স্কট ওয়াকারের বিপরীতে হিলারি পাচ্ছেন ৫১ শতাংশ ভোট। স্কট ওয়াকার পাচ্ছেন মাত্র ৩৭ শতাংশ সমর্থন।

(ডেস্ক)