মোঃ মঈন উদ্দীন চিশতী (দিনাজপুর২৪.কম) স্নেহা মনি (৮)। সকালে ঘুম থেকে উঠার আগেই জনগণের সেবার বেরিয়ে পড়েন বাবা। বাবাকে না পেয়ে মোবাইলে খোঁজ নেয় সে।বাবা তুমি কোথায় তুমি কি খেয়েছ নানা প্রশ্নে জর্জরিত করে বাবার হৃদয় কে।‌
বলছি দিনাজপুর-৬ আসনের সাংসদ এমপি শিবলী সাদিক এর কথা। উত্তর জনপদের শ্রেষ্ঠ করোনা যোদ্ধা এমপি শিবলী সাদিক ভাইকে করোনা ভাইরাসের মতো মহামারী ও একমাত্র সন্তান স্নেহা সাদিকের ভালোবাসার মায়া ঘরে বন্দী করতে রাখতে পারেনি।
পরিবারের সকল বাঁধা সকল ভয়কে জয় করে মহান আল্লাহ তায়ালার উপর ভরসা করে জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নির্দেশে রাত্রদিন ছুটে চলেছে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের সুচিকিৎসার জন্য। আক্রান্ত পরিবারের খাবারের ব্যবস্থা জন্য। লকডাউন এর সময় নবাবগঞ্জ বিরামপুর হাকিমপুর ঘোড়াঘাট উপজেলার নেতাকর্মী সহ মসজিদে ইমাম মোয়াজ্জেন, ও ৬০ হাজার পরিবারের দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিয়ে রাতের আঁধারে মানুষের দ্বারে দ্বারে খাবার পৌঁছে দিয়েছেন এবং তার সাথে করোনা ভাইরাসকে প্রতিরোধ করেই দিনাজপুর ৬ আসনের উন্নয়নের কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন। সকল প্রোগ্রাম নিজে উপস্থিত থেকে সঠিকভাবে পালন করে যাচ্ছেন এটা একমাত্র জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের সৈনিক ছাড়া আর কারো দ্বারা সম্ভব না তিনি এমন একজন মহান নেতার ছেলে যার জন্য দিনাজপুর ৬ আসনের হাজারো মানুষ দুই হাত তুলে মহান আল্লাহ তাআলার দরবারে দোয়া করেন, সেই মহান নেতা মরহুম মোস্তাফিজুর রহমান ফিজুর সুযোগ্য সন্তান হিসেবে তার দায়িত্ব ও কর্তব্য সঠিকভাবে পালন করে যাচ্ছেন আপনারা সকলে তার জন্য দোয়া করবেন  তার কোমরে বেশ কিছুদিন ধরে ব্যাথা হচ্ছে তার কারণ টানা তিন মাস একাই গাড়ি ড্রাইভিং করে চার উপজেলায় ঘুরেছেন এবং রাত দিন ঘুম না পেরে নির্ঘুম রাত কাটিয়েছেন তারেই ধারাবাহিকতায় তার শারীরিক অবস্থা একটু খারাপ তারপরেও প্রোগ্রাম করে যাচ্ছেন কোনো বাধা তাকে ঘরে আটকাতে পারেনি তার একমাত্র মেয়ে হাজারো বুদ্ধি করে বাবাকে ঘরে রাখতে চাওয়া ব্যথ হয়েছে, আপনারা বলতে পারেন কেমন চেষ্টা করেছেন ছোট্ট মামনি যখন দেখে  যে তার বাবা অসুস্থ অবস্থায় বাহিরে যাওয়ার পরিকল্পনা করছে তখনে সে গাড়ির চাবি লুকিয়ে রাখেন অথবা মানিব্যাগ লুকিয়ে রাখে অথবা বলে আমি তোমার সঙ্গে যাব এমন হাজারো চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছে ছোট্ট মামনি স্নেহা সাদিক কারণ একটাই জনগণের ভালোবাসা এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বাবার দেখানো পথ ও জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে তাকে কেউ আর ঘরে বন্দি করে রাখতে পারিনি আপনারা সকলে দোয়া করবেন তার জন্য মহান আল্লাহ তাআলা তাকে যেন সুস্থতা দান করে এবং সারা জীবন এভাবেই দেশের জন্য দিনাজপুর ৬ আসনের জনগণের জন্য কাজ করে যেতে পারেন।