(দিনাজপুর২৪.কম) জঙ্গিদের নিশানায় পাকিস্তানের থেকেও এগিয়ে রয়েছে ভারত। ভারতই হল বিশ্বের তৃতীয় দেশ যাদের সব থেকে বেশি জঙ্গি হামলার শিকার হতে হয়েছে। সম্প্রতি মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্টের দেওয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, ইরাক আর আফগানিস্তানের পরেই সবথেকে বেশি হামলার মুখোমুখি হতে হয়েছে ভারতকে।

এর আগে পাকিস্তান ছিল এই তৃতীয় স্থানে। ২০১৬ সালের হিসেব অনুযায়ী, গোটা বিশ্বের ১১,০৭২ টি জঙ্গি হামলার ঘটনার মধ্যে ভারতে হয়েছে ৯২৭টি হামলা। ২০১৫ সালের তুলনায় যা ১৬ শতাংশ বেশি।

মার্কিন রিপোর্টে আরও জানানো হয়েছে, ইসলামাবাদের আশ্রয় ও মদত পাওয়া বিভিন্ন সন্ত্রাসবাদী সংগঠন ও জঙ্গিদের জন্যই পাকিস্তানকে সন্ত্রাসবাদী হামলার ধকল এত দিন বেশি সইতে হয়েছে। এখনও হচ্ছে। আর ভারতকে সেই খেসারত দিতে হচ্ছে অন্য দেশের মদত পাওয়া সন্ত্রাসবাদীদের হামলার।

ওই রিপোর্টের পরিসংখ্যান বলছে, শুধু হামলাই নয়, সেই সব হামলার ঘটনায় ভারতে প্রাণহানির সংখ্যাও গত বছর বেড়েছে, তার আগের বছরের তুলনায়। সন্ত্রাসবাদী হামলায় ভারতে ২০১৫ সালে প্রাণ হারিয়েছিলেন ২৮৯ জন। গত বছর তা ১৭ শতাংশ বেড়ে ৩৩৭ জন হয়েছে। ওই সব ঘটনায় জখমের সংখ্যাও ২০১৫ সালের থেকে বেড়ে গত বছর হয়েছে ৬৩৬ জন।

ওই রিপোর্ট মারফত জানা যায়, গত বছর ভারতে সন্ত্রাসবাদী হামলার যতগুলি ঘটনা ঘটেছে, তার অর্ধেকই ঘটেছে চারটি রাজ্য-জম্মু-কাশ্মীর (১৯%), ছত্তীসগঢ় (১৮%), মণিপুর (১২%) ও ঝাড়খণ্ডে (১০%)। আর সন্ত্রাসবাদী হামলায় মৃত্যুর ঘটনা সবচেয়ে বেশি বেড়েছে তুরস্কে (৯৫%) ও ইরাকে (৪০%)। তার পরেই রয়েছে ভারত (১৭%) ও সোমালিয়ার (১২%) নাম। হামলার মূলে আইএস এবং তালিবানের পরেই এসেছে মাওবাদীদের নাম। তাদের বোকো হারামের চেয়েও ‘ভয়ঙ্কর’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। -ডেস্ক