(দিনাজপুর২৪.কম) চেষ্টার কোনও খামতি ছিল না। কখনও চেয়ার ছেড়ে উঠে দাঁড়িয়ে, কখনও বা এ-পাশ ও-পাশ পাইচারি করে। কয়েকবার মোবাইলটিকে থাপ্পরও দিয়েছিলেন। কিন্তু, কোনও লাভ হয়নি। শেষে গাছের গায়ে মই বাধিয়ে, তাতে ওঠার পর নেটওয়ার্ক মিলল! তা-ও আবার খাপছাড়া।

ফোনের নেটওয়ার্ক নিয়ে এমন সমস্যায় যিনি পড়লেন, তিনি যেমন তেমন মানুষ নন! ভারতের কেন্দ্রীয় অর্থ প্রতিমন্ত্রী অর্জুন রাম মেঘওয়াল। রবিবার নিজের নির্বাচনী কেন্দ্র রাজস্থানের বিকানেরের ধুলিয়া গ্রামে সভা করছিলেন অর্জুন। শুনছিলেন গ্রামবাসীদের অভাব-অভিযোগের কথা। এর মধ্যেই এক জন তাঁকে গ্রামের হাসপাতালের দুরাবস্থার কথা জানান। অভিযোগ তোলেন, স্থানীয় হাসপাতালে পর্যাপ্ত নার্স নেই।

এর পরেই মন্ত্রী এক স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে ফোন করতে যান। সমস্যাটি টের পান তখনই। কিছুতেই পাচ্ছিলেন না মোবাইলের সিগন্যাল। সে সময় এক গ্রামবাসী মেঘওয়ালকে গাছে ওঠার পরামর্শ দেন। খুঁজে নিয়ে আসা হয় বিশাল এক মই। ওই মইয়ে চেপেই এক কর্মকর্তাকে ফোন করেন মন্ত্রী।

সেই ফোন করতেই তার নাস্তানাবুদ অবস্থা। প্রায় গাছে চড়ে অর্জুনের এই ফোন করার ভিডিও ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়ে গেছে। এই ভিডিওকে হাতিয়ার করে গোটা ভারতে মোবাইল নেটওয়ার্কের দুরবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে বিরোধীরা। পরিকাঠামো নেই, অথচ ডিজিটাল ইন্ডিয়ার পক্ষে কেন্দ্রীয় সরকারের এত প্রচার কেন, সেই প্রশ্নও এখন উঠছে।

তবে, মোবাইল নেটওয়ার্কের সমস্যাটি নজরে আসতেই অর্জুন উপস্থিত কর্মকর্তাদের ওই এলাকায় আগামী তিন মাসের মধ্যে মোবাইল টাওয়ার এবং বিদ্যুতের খুঁটি বসানোর নির্দেশ দেন। এ জন্য ১৩ লক্ষ টাকা বরাদ্দও করেন তিনি। দেখুন সেই ভিডিওটি-

 

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা