দেলোয়ার হোসেন বাদশা (দিনাজপুর২৪.কম) পূর্ব শত্রুতার জেরে দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে ঝাক্কি ইমরান (৩৫) নামে এক যুবককে কে কুপিয়ে হত্যা করে ধান ক্ষেতে ফেলে পালিয়ে যাওয়ার সময় দুই যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী। আটককৃতরা হলো নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর উপজেলার কোয়াটার্স কলোনীর কালু বাবুর্চির পুত্র সুমন (১৮) ও একই উপজেলার হাতিখানা এলাকার সৈয়দ আলীর পুত্র আকবর আলী (১৯)। ঘটনাটি ঘটেছে ৪ সেপ্টেম্বর বুধবার বেলা দেড়টায় উপজেলার বাঙালপাড়া গ্রামে। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ইতিপূর্বে নিহত ঝাক্কি ইমরান সুমনকে ভারতের সীমান্তে কৌশলে বিএসএফ এর হাতে ধরিয়ে দিয়ে ৪ বছর জেল খাটিয়েছিল। এরই জের ধরে সুমনও কৌশলে ঘটনার দিন দুপুরে দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার বাঙালপাড়া গ্রামে নানার বাড়ীতে বেড়াতে নিয়ে যায়। সুযোগ বুঝে বাঙালপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পার্শ্বে ঝোপঝাড়ে নিয়ে গিয়ে আকবর আলীসহ ধারালো চাকু দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে ধান ক্ষেতে ফেলে দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় এলাকার লোকজন টের পেয়ে তাদের আটক করে চিরিরবন্দর থানায় খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল হতে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ও আটককৃতদের থানা হাজতে সোপর্দ করে। এ ব্যাপারে চিরিরবন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ মাহবুবুর রহমান জানান, নিহত ঝাক্কি ইমরানের লাশ থানায় রাখা হয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার লাশ ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে। তিনি আরও জানান, চিরিরবন্দর উপজেলায় ঘটনা সংঘটিত হলেও ঘাতক ও নিহতের বাড়ী সৈয়দপুর উপজেলায় হওয়ায় বিষয়টি সৈয়দপুর থানায় অবগত করা হয়েছে পরবর্তীতে উভয় থানার আলোচনায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।