প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফাইল ছবি

(দিনাজপুর২৪.কম) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রামের ইতিহাস-ঐতিহ্য আর সংস্কৃতির সঙ্গে কাছ থেকে পরিচিত। তারই প্রতিফলন ঘটলো রোববার (২৬ জানুয়ারি) বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্রের ১২ ঘণ্টা সম্প্রচারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে। নিজের কণ্ঠেই গাইলেন চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গান।

তিনি ‘চাটগাঁইয়া নওজোয়ান আরা হিন্দু-মুসলমান’ গানের কলি বলে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গান শুনতে চান। পরে একজন ‘বাঁশখালী-মইশখালী পাল উড়াইয়া দিলে সাম্পান গুরগুরাই টানে’ গানটি প্রধানমন্ত্রীকে গেয়ে শোনান।

রোববার (২৬ জানুয়ারি) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের একপর্যায়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এটা যেহেতু একটি সাংস্কৃতিক বিষয়, আমরা গান যদি শুনতে পারতাম ভালো হতো না?’

এর পরপরই প্রধানমন্ত্রী হাসতে হাসতে গাইলেন, ‘চাঁটগাইয়্যা মানুষ আঁরা হিন্দু-মুসলমান। সিনার লই সিনা মিলাই, ঠেকাই ঝড়-তুফান।’

এ সময় ভিডিও কনফারেন্সের চট্টগ্রাম প্রান্তে থাকা জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন আগামীতে গান শোনানোর ব্যবস্থা করবেন জানালে প্রধানমন্ত্রী প্রশ্ন করেন, ‘সেখানে কি একজনও গায়ক নেই? এটা একটা কথা হলো?’

এ সময় চট্টগ্রামের অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত এক শিল্পী গেয়ে শোনান, ‘বাঁশখালী মইশখালী পাল উড়াইয়া দিলে সাম্পান গুরগুরাই টানে আয় তোরা হন্ হন্ যাবি আঁর সাম্পানে ’ এ সময় প্রধানমন্ত্রী উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বললেন, ‘খুব ভালো, খুব সুন্দর।’

ভিডিও কনফারেন্সের সময় চট্টগ্রাম প্রান্তের অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন। এ সময় সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. ইব্রাহীম, বিটিভির মহাপরিচালক এস এম হারুন অর রশিদ, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ সালাম, বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের মহাব্যবস্থাপক নিতাই কুমার ভট্টাচার্য, চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ কে এম ফজলুল্লাহ, পুলিশ সুপার এস এম রশিদুল হক, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মফিজুর রহমান, মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নার্গিস আক্তার, চট্টগ্রাম ওয়াসার প্রধান প্রকৌশলী মাকসুদ আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। -ডেস্ক
ভিডিও দেখুন এখানে