(দিনাজপুর২৪.কম) সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ করার দাবিতে আজও জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান ধর্মঘট করেছেন চাকরি প্রার্থী অর্ধ-শতাধিক তরুণ-তরুণী। অবিলম্বে চাকুরির বয়স ৩৫ ঘোষণা না করলে আমরণ অনশন কর্মসূচির হুমকি দিয়েছেন তারা। বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদের (বাসাছাপ) ব্যানারে গত ১০ জানুয়ারি থেকে তাদের টানা এই কর্মসূচি চলছে।

‘বয়স বাড়াও, সুযোগ দাও’ এই স্লোগানকে নিয়ে আন্দোলনে দেখা গেছে শিক্ষিত এই বেকারদের। সাধারণ ছাত্র পরিষদের সভাপতি মো. ইমতিয়াজ হোসেন বলেন, উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রাজনৈতিক দলাদলি, সংঘর্ষ, শিক্ষক রাজনীতি, ছাত্ররাজনীতিসহ নানা কারণেই সেশন জটে পড়তে হয়েছে আমাদের। চার বছরের সম্মান কোর্স শেষ করতে আমাদের অনেকের ৭ বছরের বেশি সময় লেগেছে। আমাদের এই সময় কে ফিরিয়ে দেবে? আমরা চাই সরকারি চাকরিতে প্রবেশের সময় ৩৫ বছর নির্ধারণ করে দেওয়া হোক।

আন্দোলনকারিরা জানান, প্রতিদিনই সেখানে দেশের নানা প্রান্ত থেকে ছাত্র-ছাত্রীরা এসে অবস্থান নিচ্ছে। ঘন কুয়াশা আর শৈত্য প্রবাহে ঠান্ডার এই প্রতিকূলতাকে উপেক্ষা করেও বয়স বৃদ্ধি করণের আশায় বুক বেঁধে বসে পড়েছেন বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবি একটাই চাকরিতে প্রবেশনারী ক্ষেত্রে বয়স বাড়িয়ে দেয়া হোক।

সারাদেশের জেলা পর্যায়ে মানববন্ধন, বিক্ষোভ র‌্যালিসহ নানা রকম কর্মসূচি পালন শেষে তারা এ অবস্থান কর্মসূচিতে নেমেছেন। দাবি আদায় করতে তারা শিগগিরই আমরণ অনশনে নামবেন বলে জানান এই তরুণ-তরুণীরা। সারাদেশ থেকে চাকরিপ্রার্থীরা তাদের এ আন্দোলনে যোগ দিচ্ছেন।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হোসেন বলেন, চাকরিতে বয়স বাড়ানোর আমাদের এ দাবি মেনে না নিলে অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য আমরা অনশনে বসতে বাধ্য হব। অবস্থান ধর্মঘটে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদের সিনিয়র সহ-সভাপতি মামুনুর রহমান, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাদিয়া সুলতানা, মো. এনামুল হক, নাসরিন কানিজ প্রমুখ অংশ নেন। -ডেস্ক