TMC star candidate Tapas Pal at his residence in Kolkata--Salil Bera

(দিনাজপুর২৪.কম) চলে গেলেন ভারতীয় বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা তাপস পাল। মঙ্গলবার ভোররাতে ভারতের মুম্বাইয়ের একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬১ বছর। আনন্দবাজার ও এনডিটিভির খবর।

তাপস পাল একের পর এক হিট ছবি উপহার দিয়েছেন দর্শকদের। মাত্র ২২ বছর বয়সে মুক্তি পায় তাপস পালের প্রথম ছবি ‘দাদার কীর্তি’। এর পর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে।

শুধু অভিনয় নয়, কৃষ্ণনগর লোকসভা থেকে তৃণমূলের সাংসদও ছিলেন তাপস পাল। তাপস পালের জন্ম ১৯৫৮ সালে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায়। তিনি বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে হুগলি মহসিন কলেজ থেকে জীববিজ্ঞানে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন।

ছোটবেলা থেকেই অভিনয়ের প্রতি ঝোঁক ছিল তার। তার উল্লেখযোগ্য ছবিগুলোর মধ্যে রয়েছে সাহেব, অনুরাগের ছোঁয়া, পারাবত প্রিয়া, ভালোবাসা ভালোবাসা। ‘সাহেব’ ছবির জন্য তিনি ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড পান ১৯৮১ সালে।

বাংলার মতো বলিউডের ছবিতেও কাজ করেছেন তাপস পাল। ‘অবোধ’ ছবিতে মাধুরী দীক্ষিতের বিপরীতে অভিনয় করেন তিনি।

তাপস পাল ২০০৯ সালে ভারতীয় সাধারণ নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস থেকে টিকিট নিয়ে নির্বাচিত হয়ে কৃষ্ণনগর থেকে এমপি হন। ২০১৪ সালে কেন্দ্রীয় সরকারের নির্বাচনের কিছু দিন আগে একটি নির্বাচনী প্রচার সভায় বক্তৃতা দিতে গিয়ে তাপস পাল বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন।

তবে ২০১৬ সালের শেষের দিকে রোজভ্যালি নামে একটি চিটফান্ডের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে পুলিশের হাতে গ্রেফতারও হন তাপস পাল। -ডেস্ক