(দিনাজপুর২৪.কম) নতুন মন্ত্রিসভায় স্থান পেয়েছেন ২৪ জন মন্ত্রী, ১৯ প্রতিমন্ত্রী ও ৩ জন উপমন্ত্রী। মোট ৪৬ সদস্যের নতুন মন্ত্রিসভায় এবার ২৭ জন  আছেন, যারা প্রথম মন্ত্রিসভায় ঠাঁই পাচ্ছেন। আবার চারজন আছেন যারা সর্বশেষ মন্ত্রিসভায় না থাকলেও এর আগে আওয়ামী লীগের 
মন্ত্রিসভায় ছিলেন। এই দুই মিলিয়ে ৩১ জন সদস্য নতুন মন্ত্রিসভার নতুন মুখ

সিনিয়র হেভিওয়েটদের বাদ দিয়ে বেশিরভাগ নতুন সদস্যদের নিয়েই মন্ত্রিসভা গঠন করতে যাচ্ছেন সংসদ নেতা ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। একাদশ সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার পর থেকেই বিভিন্ন মাধ্যমে এবারের মন্ত্রিসভায় চমকের কথা ছড়িয়ে যেতে থাকে। অবশেষে শেখ হাসিনা ম্যাজিক প্রতিফলিত হয়েছে নতুন মন্ত্রিসভায়। প্রধানমন্ত্রীসহ নতুন মন্ত্রিসভার আকার দাঁড়িয়েছে ৪৭ জনে। মন্ত্রিসভায় একেবারেই নতুন মুখ ২৭ জন। এর মধ্যে পূর্ণমন্ত্রী নয়জন, প্রতিমন্ত্রী ১৫ জন এবং উপমন্ত্রীর তিনজনই নতুন। তাদের মধ্যে অর্ধেকের বেশি মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী প্রথমবারের মতো সরকারের দায়িত্ব পালন করতে আসছেন। বিদায়ী সরকারে থাকা ৩৪ জনের নতুন মন্ত্রিসভায় স্থান হয়নি। সরকারের ২৪ জন মন্ত্রীর মধ্যে নয়জনই একেবারে নতুন। বিদায়ী সরকারে না থাকলেও আগে মন্ত্রিসভায় দায়িত্ব পালন করেছেন এমন তিনজনকে শেখ হাসিনা ফিরিয়ে এনেছেন পূর্ণ মন্ত্রী হিসেবে। পুরনোদের মধ্যে যে সাতজন মন্ত্রী নতুন সরকারে টিকে গেছেন, তাদের ছয়জনই আগের দপ্তরে থেকে যাচ্ছেন। এছাড়া গত সরকারের পাঁচজন প্রতিমন্ত্রীর এবার পদোন্নতি দিয়ে পূর্ণমন্ত্রী করা হয়েছে। শেখ হাসিনার গত সরকারে অনির্বাচিত (টেকনোক্র্যাট) মন্ত্রী ছিলেন চারজন, তাদের মধ্যে দুজনকে এবারো সরকারে রাখা হয়েছে। এছাড়া টেকনোক্র্যাট হিসেবে প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে এসেছেন একজন। প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়া ১৯ জনের মধ্যে ১৫ জনই সরকারে আসছেন এই প্রথমবার। তিনজন শেখ হাসিনার গত সরকারেও প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন। আর একজন আগে সরকারে থাকলেও গত মন্ত্রিসভায় ছিলেন না। শেখ হাসিনা তার এবারের সরকারে তিন মন্ত্রণালয়ে তিনজনকে উপমন্ত্রী করেছেন, তাদের সবাই নতুন মুখ। শপথ উপলক্ষে গতকাল বিকালে নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের তালিকা প্রকাশ করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। এরই মধ্যে তাদের দপ্তরও বণ্টন করে দেয়া হয়েছে। গতকাল বিকালে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলন আনুষ্ঠানিকভাবে এসব তথ্য জানান মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। ঘোষণা অনুযায়ী, পুরনো অনেক মন্ত্রী বাদ পড়েছেন মন্ত্রিসভায়। আবার নতুন অনেকেই স্থান পেয়েছেন টানা তৃতীয়বারের শেখ হাসিনা সরকারের মন্ত্রিসভায়। গতকাল মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে শপথ নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের টেলিফোন করা হয়। একই সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে পত্র পাঠানো হয়েছে। আজ সোমবার নতুন মন্ত্রিসভার ২৪ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী ও ৩ জন উপমন্ত্রী শপথ নিতে যাচ্ছেন। ৪৭ সদস্যের মন্ত্রিপরিষদ বিকাল সাড়ে ৩টায় বঙ্গভবনে শপথ নিবেন। নতুন মন্ত্রিসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দায়িত্ব নিয়েছেন নতুন-পুরনো মিলিয়ে পাঁচ মন্ত্রণালয়ের। নতুন মন্ত্রিসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে থাকছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ; জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়; প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়; সশস্ত্রবাহিনী বিভাগ; বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় এবং মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী-উপমন্ত্রী হচ্ছেন যারা : পূর্ণমন্ত্রী হচ্ছেন ২৪ জন। তারা হলেন আকম মোজাম্মেল হক (মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক), ওবায়দুল কাদের (সড়ক পরিবহণ ও সেতু), আব্দুর রাজ্জাক (কৃষি), আসাদুজ্জামান খান কামাল (স্বরাষ্ট্র), হাছান মাহমুদ (তথ্য), আনিসুল হক (আইন), আহম মুস্তফা কামাল (অর্থ), তাজুল ইসলাম (স্থানীয় সরকার), দীপু মনি (শিক্ষা), একে আবদুল মোমেন (পররাষ্ট্র), এমএ মান্নান (পরিকল্পনা), নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন (শিল্প), গোলাম দস্তগীর গাজী (বস্ত্র ও পাট), জাহিদ মালেক (স্বাস্থ্য), সাধন চন্দ্র মজুমদার (খাদ্য), টিপু মুনশি (বাণিজ্য), নুরুজ্জামান আহমেদ (সমাজকল্যাণ), শম রেজাউল করিম (গণপূর্ত), মো. শাহাব উদ্দিন (পরিবেশ ও বন), বীর বাহাদুর ঊশৈ সিং (পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক), সাইফুজ্জামান চৌধুরী (ভূমি), নুরুল ইসলাম সুজন (রেলপথ), ইয়াফেস ওসমান টেকনোক্র্যাট (বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি), মোস্তাফা জব্বার টেকনোক্র্যাট (ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি)।১৯ জন প্রতিমন্ত্রী হচ্ছেন কামাল আহমেদ মজুমদার (শিল্প), ইমরান আহমেদ (প্রবাসীকল্যাণ), জাহিদ আহসান রাসেল (যুব ও ক্রীড়া), নসরুল হামিদ (বিদ্যুৎ ও জ্বালানি), আশরাফ আলী খান খসরু (মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ), মন্নুজান সুফিয়ান (শ্রম), খালিদ মাহমুদ চৌধুরী (নৌপরিবহণ), জাকির হোসেন (প্রাথমিক ও গণশিক্ষা), শাহরিয়ার আলম (পররাষ্ট্র), জুনায়েদ আহমেদ পলক (তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি), ফরহাদ হোসেন (জনপ্রশাসন), স্বপন ভট্টাচার্য (স্থানীয় সরকার), জাহিদ ফারুক (পানিসম্পদ), মো. মুরাদ হাসান (স্বাস্থ্য), শরীফ আহমেদ (সমাজকল্যাণ), কেএম খালিদ (সংস্কৃতি), এনামুর রহমান (দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ), মাহবুব আলী (বিমান), শেখ মো. আবদুল্লাহ টেকনোক্র্যাট (ধর্ম)। ৩ জন উপমন্ত্রী হচ্ছেন বেগম হাবিবুন নাহার (পরিবেশ), একেএম এনামুল হক শামীম (পানিসম্পদ), মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল (শিক্ষা)।

নতুন মন্ত্রীদের গাড়ি প্রস্তুত
পরিবহণ পুলে ধোয়ামোছা হচ্ছে গাড়ি। শপথ নিতে যাওয়া মন্ত্রিসভার সদস্যদের জন্য প্রায় ৭০টি গাড়ি প্রস্তুত করা হয়েছে। পরিবহণ পুলে গাড়িগুলো শেষ মুহূর্তের ধোয়ামোছার কাজ শেষ করা হয়েছে। পরিবহণ পুলের একজন কর্মকর্তা জানান, আমাদের যথেষ্ট গাড়ি প্রস্তুত রাখা আছে। চালকও প্রস্তুত। মন্ত্রীদের ঠিকানা পেলেই আমরা গাড়ি পৌঁছে দিতে পারবো। গাড়ি যা লাগবে সবই দেয়া যাবে। গতকাল সরেজমিন পরিবহণ পুলে গিয়ে দেখা গেছে, টয়োটা হাইব্রিড গাড়ি সারি সারি প্রস্তুত রাখা হয়েছে। মন্ত্রিসভার সদস্যদের বঙ্গভবনে যাওয়ার জন্য এসব গাড়ি বরাদ্দ থাকবে, সেগুলোতে জাতীয় পতাকার স্ট্যান্ডও যুক্ত করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে জয়ের মধ্য দিয়ে সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা শেখ হাসিনাকে গত বৃহস্পতিবারই সরকার গঠনের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পর, ১২ জানুয়ারি ৪৯ সদস্যের মন্ত্রিসভা গঠন করে যাত্রা শুরু হয়েছিল সরকারের। তাদের মধ্যে ২৯ জন মন্ত্রী, ১৭ জন প্রতিমন্ত্রী ও দুজন উপমন্ত্রী। শেষ পর্যন্ত ওই মন্ত্রিসভার সদস্য ছিলেন ৫৩ জন। তবে ভোটের আগে পদত্যাগ করেন চার টেকনোক্র্যাট মন্ত্রী। শেষ পর্যন্ত সংখ্যাটি দাঁড়ায় ৪৯। -ডেস্ক