(দিনাজপুর২৪.কম) চট্টগ্রামে ভারতীয় এক শিক্ষার্থীর রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। একই সঙ্গে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলান্ত ও রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে অপর একজনকে।
গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত একটার দিকে নগরের আবদুল হামিদ সড়কের ইউসুফ ভবন নামের একটি বাড়ির কক্ষ থেকে এ মরদেহ ও ঝুলান্ত শিক্ষার্থীকে উদ্ধা করা হয়। নিহত আসিফ শেঠ (২৬) এবং আহত উইলসন (২৬) দুজনই চট্টগ্রামের বেসরকারি ইউএসটিসি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। মেডিকেল পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক মোহাম্মদ হামিদ গণমাধ্যমকে জানান, নগরীর আকবর শাহ থানার আব্দুল হামিদ সড়কের একটি বাসায় এক কক্ষে থাকতেন তারা। শুক্রবার মধ্যরাতে দুজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনা হলে চিকিৎসকরা আসিফকে মৃত ঘোষণা করেন। আসিফের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। আহত হামিদ গণমাধ্যমকে বলেন, ইউএসটিসির আরেক ভারতীয় ছাত্র নিরাজ গুরু রাত সোয়া ১টার দিকে ওই দুজনকে হাসপাতালে আনেন। নিরাজ তার স্ত্রীকে নিয়ে ওই ফ্ল্যাটে আসিফ ও উইলসনের পাশের কক্ষে থাকেন। নিরাজ বলেছে, আসিফ ও উইলসন রাত সাড়ে ১১টার দিকে তাদের কক্ষে মদ্যপান করছিল। ১২টার দিকে ওই কক্ষ থেকে শব্দ পেয়ে তিনি কক্ষটি খোলার চেষ্টা করেন। কিন্তু কক্ষটি ভেতর থেকে বন্ধ ছিল। এক পর্যায়ে তিনি বিকল্প চাবি দিয়ে দরজা খুলে ভেতরে ঢুকে উইলসনকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। তখন তিনি স্ত্রীকে নিয়ে উইলসনকে নিচে নামান। এ সময় আসিফকে মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখেন। পরে প্রতিবেশীদের সহায়তায় দুজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে আনেন। আকবর শাহ থানার এসআই জসিমউদ্দিন জানান, ওই বাসায় যে চারজন থাকতেন তারা সবাই ভারতের মণিপুরের বাসিন্দা। তবে তারা কে কোন বিভাগের কোন বর্ষের ছাত্র তা জানা যায়নি। কীভাবে এ হত্যাকাণ্ড ঘটল তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। -ডেস্ক