মোঃ শফিকুল ইসলাম শফি (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে উপজেলার ৭টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণী থেকে পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের মাঝে টিফিন বাটি বিতরণ করেন অভিভাবক সমাবেশ অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি উপজেলার চেয়ারম্যান শাহ মো: শামীম হোসেন চৌধুরী । গতকাল মঙ্গলবার উপজেলার বুলাকীপুর ইউনিয়নের শালিকাদহ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় , লোহারবন্দ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, উত্তর দেবীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, শ্রীচন্দ্রপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় , উধয়ধুল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় , কৃষ্ণরামপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ভেলাইন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে এ টিফিন বাটি বিতরণ করা হয়। এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঘোড়াঘাট উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো: আলমগীর হোসেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রুশিনা সরেন, বুলাকীপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো: মাহফুজার রহমান লাবলু , উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা অতুল চন্দ্র রায়, সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল হাই মন্ডল। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শালিকাদহ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জিল্লু রহমান, লোহারবন্দ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি আবু তাহের, প্রধান শিক্ষক শাহিনুর রহমান চৌধুরী, উত্তর দেবীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি রফিকুল ইসলাম , প্রধান শিক্ষক ইকবাল হোসেন, শ্রী চন্দ্রপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা রেহেনা বেগম , উধয়ধুল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি আব্দুল্লা , প্রধান শিক্ষক রাসেল তালুকদার , ভেলাইন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি মো: মুশফিকুর রহমান , প্রধান শিক্ষক মো: বদিউজ্জামান , কৃষ্ণরামপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মঈন উদ্দিন প্রমুখ। ২০১৪ সালে ঘোড়াঘাট উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে উপজেলার সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণী থেকে পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের মাঝে টিফিন বাটি বিতরণে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এরই ধারবাহিকতায় প্রথম পর্যায়ে ১১টি , দ্বিতীয় পর্যায়ে ১৩টি ও তৃতীয় পর্যায়ে ৪৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ টিফিন বাটি মিড ডে মিল চালু করার লক্ষ্য নিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতরণ করা হবে।
ক্যাপশন: গতকাল মঙ্গলবার ঘোড়াঘাট উপজেলার উত্তর দেবীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অভিভাবক সমাবেশে শিক্ষার্থীদের মাঝে টিফিন বাটি বিতরণ করেন উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ্ মো: শামীম হোসেন চৌধুরী।