মনোরঞ্জন মোহস্ত (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে আমিরন (৩৫) নামের এক গৃহবধকে যৌতুকের দায়ে মধ্য যুগীয় কায়দায়  নির্যাতন করে তালাক প্রদান করেছে এক পাষন্ড স্বামী। ঘোড়াঘাট থানার এজাহার সুত্রে জানা যায়, ঘোড়াঘাট উপজেলার নুরপুর গ্রামের জামাল সরকারের মেয়ে আমিরনের সাথে একই উপজেলার আফছারাবাদ গ্রামের আমির কোশাইয়ের পুত্র মইনুল কশাইয়ের সাথে ধর্মীয় রেজিষ্ট্রী মতে বিবাহ হয়। বিবাহ পর থেকে স্বামীও তার পিতা-মাতা আমিরনকে তার পিতার বাড়ি হইতে যৌতুকের ২ লক্ষ টাকা আনার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। এতে স্ত্রী আমিরন যৌতুকের টাকা পিতার বাড়ি থেকে আনতে অস্বীকরাই গত ৩০ জুলাই রাত আনুমানিক ৯ ঘটিকার দিকে আমিরনের স্বামী ও দেবর মধ্য যুগের কায়দায় নির্যাতন চালিয়ে তালাক নামায় সহি স্বাক্ষর নেয়। পরে আহত আমিরন বেগমকে এলাকাবাসী ঘোড়াঘাট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তার অবস্থা আশংকা বলে জানা যায়। এব্যাপারে আমিরন বেগম বাদী হয়ে ঘোড়াঘাট থানায় একটি মামলা রুজু করে।