(দিনাজপুর২৪.কম) গ্রামপুলিশদের জীবন-মান ও ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে বার বার আশ্বাস দেওয়া হলেও বাস্তবমুখী কোনও সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়নি। বর্তমান পরিস্থিতিতে গ্রামপুলিশ মানবেতর জীবন যাপন করছে। তাই সরকারের উচিত হবে চতুর্থশ্রেণির কর্মচারীর সমস্কেলে বেতন ঘোষণা করা। বুধবার (২৫ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১টার সময় রাজধানীর শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে বাংলাদেশ গ্রাম পুলিশ কর্মচারী ইউনিয়ন আয়োজিত আলোচসভায় এমন মন্তব্য করেন বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট ফোরাম (বোয়াফ) সভাপতি কবীর চৌধুরী তন্ময়।

আলোচক বাংলাদেশ সংযুক্ত শ্রমিক ফেডারেশন সভাপতি মোসাদেক হোসেন স্বপন বলেন, গ্রাম পুলিশদের দৈনিক বেতন ১০০ টাকা হতে পারে না। এই বৈষম্যের বেতন সরকার খুব শীঘ্রই প্রত্যার করে বাস্তবমুখী সিদ্ধান্ত গ্রহণে আন্তরিক হবেন। হাজার হাজার গ্রাম পুলিশ কর্মকর্তাদের জীবন-মান ও ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করতে হবে। এই জনগোষ্ঠীকে এগিয়ে নিতে সরকারকেই এগিয়ে আসতে হবে।

আলোচক বোয়াফ সভাপতি কবীর চৌধুরী তন্ময় বলেন, প্রায় ২’শ বছরের বেশি পুরনো এই গ্রামপুলিশ আজ সকল দিক থেকে অবহেলিত। সরকারের বিভিন্ন উচ্চ পদস্ত কর্মকর্তা বার বার আশ্বাসের বাণী শোনালেও বাস্তবমুখী কোনো সিদ্ধান্ত এখনো গ্রহণ করতে পারেনি। বর্তমান সময়ে গ্রাম পুলিশ কর্মকর্তাদের ৩ হাজার টাকা বেতন অমানবিক এবং চরম বৈষম্য।

তিঁনি আরও বলেন, স্থানীয় সরকার বিভাগের প্রতিষ্ঠানসমূহ যেমন- সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা, জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, স্থানীয় পর্যায়ে ইউনিয়ন পরিষদ সরকারি বা আধা-সরকারি বা স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান হলে, গ্রাম পুলিশও সরকার কর্তৃক ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারীর ন্যায় সমস্কেল বেতন পাওয়ার অধিকার রাখে।

সংগঠনের মহাসচিব এম এ নাছেরের সঞ্চালনায় সংগঠনের চেয়ারম্যান মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে এ সময় বাংলাদেশ সংযুক্ত শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক হাজী মোকাদ্দেম হোসেন, সংগঠনের উপদেষ্ঠা হাজী মজিবুর রহমান, শেখ মোহাম্মদ আলীসহ বিভিন্ন জেলা উপজেলার গ্রামপুলিশদের নেতৃবৃন্দ।