(দিনাজপুর২৪.কম) বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে চট্টগ্রামের একটি আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুর ১টার দিকে চট্টগ্রামের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রট-৪ শহীদুল্লাহ কায়সারের আদালতে এই গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়।  প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি ও উসকানিমূলক বক্তব্য দেয়ার অভিযোগে চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন মুহুরী মামলাটি দায়ের করেন। এর আগে বুধবার রাতে ফটিকছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. জামাল উদ্দিন থানায় প্রথম মামলা দায়ের করেন। আদালতে দায়ের করা মামলায় বাদি পক্ষের আইনজীবি ছিলেন সমরদাশ গুপ্ত। চট্টগ্রাম আইনজীবী পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরীসহ কয়েকজন সিনিয়র আইনজীবী মামলা পরিচালনায় সহায়তা করেন।

অ্যাডভোকেট সমরদাশ গুপ্ত জানান, মামলায় প্রধানমন্ত্রীকে হুমকি এবং তাকে উদ্দেশ্য করে উসকানিমূলক বক্তব্যের অভিযোগ আনা হয়। এধরনের উসকানি সমাজে দাঙ্গা-হাঙ্গামা সৃষ্টি করতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করা হয় আর্জিতে। ফলে আদালত মামলার আসামি গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।
এর আগে বুধবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগে ফটিকছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. জামাল উদ্দিন বাদী হয়ে বিএনপি নেতা গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরীসহ ৬০-৭০ জন বিএনপি নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ নিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ছাত্রলীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীরা ফটিকছড়ি উপজেলা সদরে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করছেন। অপরদিকে বুধবার রাতে নগরীর গুডস হিলে গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরীর বাসায় হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর চালায় ছাত্রলীগ।
প্রসঙ্গত, সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৭ তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে ফটিকছড়ি উপজেলা ও পৌরসভা বিএনপি আয়োজিত আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরী। বক্তব্যে তিনি বলেন, শেখ মুজিবের মৃত্যুর পর ইন্নালিল্লাহ পড়ার লোক ছিলনা। বর্তমান শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের অবস্থা তার চেয়েও ভয়াবহ হবে। ক্রস ফায়ারের নামে এত মানুষ হত্যার দায় তাকে নিতে হবে। তবে ফটিকছড়ি উপজেলা বিএনপির দাবী, মিডিয়ায় গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরীর বক্তব্যকে বিকৃতভাবে প্রচার করা হয়েছে। তিনি কটুক্তি কিংবা হুমকি মূলক কোন বক্তব্য দেননি। -ডেস্ক