(দিনাজপুর ২৪.কম) রাজধানী ঢাকার বাড্ডা এলাকার সাইদুল ইসলাম (৩৫) নামের এক যুবলীগ নেতা গাজীপুর জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সাথে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে গাজীপুরের দক্ষিণ সালনা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তিনি দক্ষিণ বাড্ডা এলাকার মৃত জৈমত আলীর ছেলে এবং বাড্ডার ৯৭ নম্বর ওয়ার্ডের অন্তর্ভুক্ত শিমুলতলা ইউনিট যুবলীগের সাবেক সভাপতি ছিলেন।
এদিকে গাজীপুর জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক মো. আমির হোসেন জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে সাইদুরকে গ্রেপ্তারের পর রাতে অস্ত্র উদ্ধারের জন্য রাত পৌনে ১২টার দিকে গাজীপুর মহানগরীর দক্ষিণ সালনা এলাকায় যায় পুলিশ। সেখানে আগে থেকে ওত পেতে থাকা সাইদুরের সহযোগী সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এসময় পুলিশও পাল্টা গুলি করলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। একপর্যায়ে ক্রসফায়ারে পড়ে সাইদুর উরুতে গুলিবিদ্ধ হন। রাতেই আহত অবস্থায় সাইদুরকে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সাইদুর মারা যান। তার বিরুদ্ধে গাজীপুরের জয়দেবপুর থানায় দুইটি ও বাড্ডা থানায় পাঁচটি হত্যা মামলা ছিল।
পুলিশ আরো জানায়, বন্দুকযুদ্ধে গোয়েন্দা পুলিশের দুই সদস্য আহত হয়েছেন। তারা হলেন কনস্টেবল ইয়াসিন (৩০) ও উজ্জ্বল (৩১)। তাদেরকে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এ বিষয়ে হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক রঞ্জিত কুমার পাল জানান, হাসপাতালে আনার পর প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার সময় সাইদুর রহমানের মৃত্যু হয়। তার দুই পায়ের উরুতে জখমের চিহ্ন রয়েছে। তাছাড়া আহত দুই পুলিশ সদস্যকেও ভর্তি করা হয়েছে।
অন্যদিকে নিহত সাইদুর রহমানের পরিবারের দাবি, সাইদুরকে গত বুধবার বিকেলে আটক করা হয়। তিনি এলাকায় যুবলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।  (ডেস্ক)