(দিনাজপুর২৪.কম)গাইবান্ধা জেলা আইন শৃংখলা কমিটির মাসিক সভা আজ মঙ্গলবার জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা প্রশাসক মো. আব্দুস সামাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পীকার এডভোকেট ফজলে রাব্বি মিয়া এমপি ও হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি এমপি। সভায় জেলার সার্বিক আইন শৃংখলা পরিস্থিতি পর্যালোচনাসহ গুরুত্বপূর্ণ কতিপয় সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সিদ্ধান্ত সমূহ হলো, জেলা শহরে যানবাহন চলাচলকে বিঘœ সৃষ্টিকারী গাইবান্ধা পৌর মার্কেটের সিঁড়ি অবিলম্বে অপসারণ, যানজট নিরসনে রেজিস্ট্রেশন বিহীন গাড়ি চলাচল বন্ধ করণসহ অটোরিক্সা, ইজিবাইকের সংখ্যা নিয়ন্ত্রণের পদপেক্ষ গ্রহণ, উপজেলা পর্যায়ে নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা, নারী নির্যাতন, বাল্য বিবাহ ও মাদক দ্রব্যের অপব্যবহার প্রতিরোধে উপজেলা পর্যায়ে উদ্বুদ্ধকরণ সভার আয়োজনের মাধ্যমে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলা এবং প্রয়োজনে এক্ষেত্রে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্যোগ। সভায় জেলার অব্যাহত বিদ্যুৎ সংকট নিরসনে জরুরী ভিত্তিতে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের দাবীতে গাইবান্ধা বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলীকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হয়। তদুপরি চলতি বর্ষা মৌসুমে তিস্তা, ব্রহ্মপুত্র ও যমুনা নদীতে নৌ ডাকাতি বন্ধে সদর ও ফুলছড়ি উপজেলায় কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণে আরও তৎপর হওয়ার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেয়া হয়। বিআরটিসির গাড়ি তাদের ডিপো থেকে পরিচালনা করা এবং অন্যান্য সকল যাত্রীবাহি বাস ও মিনিবাস শুধুমাত্র টার্মিনাল ব্যতিরেকে রাস্তার পাশ থেকে চলাচল করার নির্দেশ দেয়া হয়। বিশেষ করে ঈদ উপলক্ষ্যে এ ব্যাপারে আরও নজরদারী বৃদ্ধিসহ যানবাহন চলাচল এবং আইন শৃংখলা পরিস্থিতি স্থীতিশীল রাখার উপর সর্বাধিক গুরুত্বারোপ করা হয়।
সভায় ডেপুটি স্পীকার ও হুইপ তাদের বক্তব্যে উলে¬খ করেন, গাইবান্ধা জেলার সার্বিক আইন শৃংখলা পরিস্থিতি, দেশের অন্যান্য জেলার চাইতে অনেক উন্নত। জনকল্যাণে জেলার আইন শৃংখলা পরিস্থিতি আগামীতে আরও স্থীতিশীল রাখতে সকলের সমন্বিত উদ্যোগ একান্ত অপরিহার্য। জেলা থেকে নাশকতা, মাদক দ্রব্যের অপব্যবহার প্রতিরোধে জরুরী ভিত্তিতে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের তারা সর্বাধিক গুরুত্বারোপ করেন। সভায় পুলিশ সুপার মো আশরাফুল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আলেয়া বেগমসহ সাত উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, র‌্যাব ও এনএসআইসহ জেলা পর্যায়ের সকল কর্মকর্তা এবং আইন শৃংখলা কমিটির সকল সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। (ডেস্ক)