(দিনাজপুর২৪.কম) একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় গাইবান্ধা সদর উপজেলার পাঁচ রাজাকারকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) দুপুরে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এ রায় দেন।

আদালত সূত্র জানায়, মৃত্যুদণ্ডের রায় ঘোষণা করেন বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। ট্রাইব্যুনালের বাকী দুই সদস্য বিচারপতি হলেন বিচারপতি আমীর হোসেন ও বিচারপতি আবু আহমেদ জমাদার। গতকাল সোমবার ট্রাইব্যুনাল রায়ের জন্য দিন নির্ধারণ করেন।

পাঁচ রাজাকার হলেন মো. রঞ্জু মিয়া, আবদুল জব্বার, মো. জাফিজার রহমান খোকা, মো. আবদুল ওয়াহেদ মণ্ডল ও মো. মমতাজ আলী বেপারি। তাঁদের মধ্যে রঞ্জু মিয়া কারাবন্দি। বাকি চারজন পলাতক। এ ছাড়া মামলা হওয়ার পর আরো এক আসামি আজগর হোসেন খান মারা যাওয়ায় তাঁর আর বিচার হচ্ছে না।

গত ২১ জুলাই মামলাটির বিচারিক কাজ শেষে রায়ের জন্য অপেক্ষমান (সিএভি) রাখেন ট্রাইব্যুনাল। মামলায় প্রথমে ছয়জন আসামি ছিলেন। পরে অভিযোগ গঠনের আগেই একজন মারা যায়। পরে পাচঁ জনের বিরুদ্ধে বিচারিক কার্যক্রম চলে। এর মধ্যে মো. রনজু মিয়া (৫৯) গ্রেফতার আছেন, বাকি চারজন পলাতক। তারা হলেন- আব্দুল জব্বার মন্ডল, তার ছেলে জাছিজার রহমান ওরফে খোকা (৬৪), মোন্তাজ আলী ব্যাপারি (৬৮) ও আব্দুল ওয়াহেদ মন্ডল (৬২)।

এসব আসামিদের বিরুদ্ধে তদন্ত শেষ করে ২০১৬ সালের ২১ ডিসেম্বর প্রতিবেদন প্রকাশ করে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা। আসামিদের বিরুদ্ধে হত্যা, নির্যাতন, অগ্নিসংযোগসহ চারটি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয়। এরপর ২০১৭ সালের ১২ মার্চ প্রসিকিউশন এ মামলার অভিযোগ দাখিল করে। প্রসিকিউশনের অভিযোগ আমলে নিয়ে শুনানি শেষে গত বছরের ১৭ মে চার অভিযোগে মামলার অভিযোগ গঠন করে ট্রাইব্যুনাল। এ মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের ১৬ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়। -ডেস্ক