(দিনাজপুর২৪.কম) গ্রীষ্মের এ দাবদাহে প্রাণ উষ্ঠাগত। কর্মমুখী মানুষদের জীবিকার তাড়নার রোজ ঘর থেকে বের হতেই হয়। তীব্র গরম উপেক্ষা করে দূর দূরান্তে ছুটতে হয়। ফলে এসময় শরীর একটু বেশিই ক্লান্ত হয়ে পড়ে। আলাদা করে নিজের যত্ন নেয়ার সময়টা বের করা কঠিন। তাই এসময় খাদ্যতালিকায় কিছু পরিবর্তন করেই নিজের শরীর ঠিক রাখতে হবে।

গরমে চর্বিযুক্ত, তৈলাক্ত, ভাজা-পোড়া খাবার এড়িয়ে চলুন। রসালো ফল যেমন আনারস, তরমুজ, ক্ষীরা, শসা, টমেটো খেতে পারেন। সকালের নাস্তায় থাকতে পারে দই-চিড়া, সালাদ। বেশি বেশি করে শাক-সবজি খান।

ঘাম হওয়ায় এসময় প্রচুর পানি পান করতে হবে। ঘর থেকে বের হওয়ার সময় সঙ্গে পানি, ফল ও সালাদ রাখতে পারেন। রাস্তার খাবার এড়িয়ে চলুন। অতি গরমের চোটে রাস্তায় পাওয়া শরবত বা পানি পান থেকে নিজেকে দূরে রাখুন। জাঙ্কফুড ও কোমল পানীয় সবসময় শরীরের জন্য হানিকর। আর এই গরমে তো আরও বেশি। এগুলো খাদ্যতালিকা থেকে বাদ দিন।

খাদ্য তালিকা থেকে আমিষ জাতীয় খাবার কমিয়ে নিরামিষ খাবার যোগ করুন। ঘরে ফেরার পর ওরস্যালাইন, ডাবের পানি, লেবুর শরবত পান করতে পারেন। চা ও কফি এড়িয়ে চলুন। শরীর সতেজ থাকবে। গরমে অসুস্থতায় ভোগার আশঙ্কাও দূর হবে। -ডেস্ক