ডাবের পানি। পুরোনো ছবি

(দিনাজপুর২৪.কম) এখন গ্রীষ্মকাল। সামনের দিনগুলোতে গরম আরও বাড়বে। এ সময় সুস্থ থাকতে হলে পরিহার করতে হবে তৈলাক্ত, ভাজাপোড়া, মসলাযুক্ত খাবার। শুধু সুস্থতা নয়, বরং ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতেও বেশি করে ঠান্ডা জাতীয় ও আরামদায়ক খাবার গ্রহণ করতে হবে। এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে শরীর ঠান্ডা রাখার পাশাপাশি ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার ছয়টি খাবারের কথা বলা হয়েছে।

শরীর সুস্থ রাখতে খাদ্যতালিকায় রাখুন এই ছয়টি খাবার-

ডাবের পানি

গরমে ডাবের পানির কোনো বিকল্প নেই। এটি ইলেকট্রোলাইটে ভরপুর, যা শরীর আর্দ্র রাখার পাশাপাশি শক্তিও জোগায়। আবার অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের ভালো উৎস এই ডাবের পানি।

শশা

গরমকালের বেশ জনপ্রিয় খাবার শশা। সালাদ, জুস, পানীয়, রায়তা তৈরিতে এটি ব্যবহার করতে পারেন। শশার ৯৫ শতাংশ শুধু পানি। ১০০ গ্রাম শশায় মাত্র ৬ ক্যালোরি রয়েছে। ডায়েটকারীদের জন্য এটি চমৎকার খাবার।

দই

বিভিন্ন পুষ্টি উপাদানে ভরপুর দই, যা হজম প্রক্রিয়ার উন্নতি ঘটাতে সহায়ক। দইয়ে থাকা উপকারী ব্যাকটেরিয়া অন্ত্রের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটাতে সহায়তা করে।

তরমুজ

মিষ্টি এবং সুস্বাদু এই ফলের পুরোটাই পানি ও পুষ্টিতে ভরপুর। মিষ্টিজাতীয় কিছু খেতে চাইলে তরমুজ খেতে পারেন। এটি আপনাকে চিনি খাওয়া থেকে বিরত রাখবে ও গরমে শরীরে প্রশান্তি নিয়ে আসবে।

পুদিনা

গরম প্রতিরোধক দৈনন্দিন খাবার তৈরিতে পুদিনা ব্যবহার হয়। এটি শরীর সতেজ রাখার পাশাপাশি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। পাশাপাশি হজম প্রক্রিয়ার উন্নতি ঘটায় ও শীতল নিশ্বাসে সহায়তা করে।

বসিল বীজ

ডেজার্টস বা পানীয় তৈরিতে এই উপাদান ব্যবহৃত হয়। এর স্বাস্থ্য উপকারিতা অনেক। অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে ভরপুর এই বীজ ডায়াবেটিস ও ত্বকের জন্য উপকারী। -ডেস্ক