(দিনাজপুর২৪.কম) মালিক-শ্রমিকদের ধর্মঘটে শনিবারও গণপরিহন সঙ্কট চলছে রাজধানীতে। গণপরিবহন না থাকায় দুর্ভোগে পড়েছেন রাজধানীবাসী। শনিবার সকালে স্কুল-কলেজ ও অফিসগামী মানুষ ভোগান্তির শিকার হয়েছেন। গণপরিবহন না থাকায় অনেকে পায়ে হেঁটে নিজ গন্তব্যের দিকে রওয়ানা হয়েছেন। কেউ কেউ পিকঅ্যাপ ভ্যান কিংবা রিকশা ভ্যানে চড়ে গন্তব্যে যাচ্ছেন। সবচেয়ে ভোগান্তির শিকার হয়েছেন রোগী ও তাদের স্বজনরা।

বাস না থাকায় রাজধানীর প্রধান সড়কগুলো এখন প্রাইভেট কার, মোটর বাইক ও রিকশার দখলে।
শহীদ রমিজ উদ্দিন কলেজের দুই ছাত্র-ছাত্রী নিহতের জের ধরে নিরাপদ সড়কের দাবিতে গত পাঁচদিন যাবৎ আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। আন্দোলন পরবর্তীতে ঢাকার বাইরেও ছড়িয়ে পড়ে। সড়কের নিয়ন্ত্রণ শিক্ষার্থীদের কাছে চলে যাওয়ায় ধর্মঘটের অঘোষিতভাবে ধর্মঘট পালন শুরু করে পরিবহন মালিক- শ্রমিকরা। লোকাল সার্ভিসের পাশাপাশি রাজধানীতে গত তিন দিন থেকে দূরপাল্লার বাস চলাচলও বন্ধ রয়েছে। মালিক-শ্রমিকদের ভাষ্য, সড়কে তাদের গাড়ি ভাঙচুরের শিকার হচ্ছে। নিরাপত্তা নিশ্চিত না হলে তারা গাড়ি বের করবেন না। আজ শনিবার পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে পারে বলে আশ্বাস দিয়েছিলেন সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি ও নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান। -ডেস্ক