(দিনাজপুর ২৪.কম) বর্তমানে দেশে খাসজমির পরিমাণ প্রায় ৩৯ লাখ একর। আজ শনিবার জাতীয় সংসদে ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ বলেছেন, বর্তমানে দেশে খাসজমির পরিমাণ ৩৮ লাখ ৭০ হাজার ৯৪৪ দশমিক ৩৩৩৭ একর। সরকারি দলের সদস্য বেগম ওয়াসিকা আয়শা খানের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, বেআইনীভাবে দখলকৃত খাসজমি উদ্ধারের প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে। তিনি জানান, খাসজমির মধ্যে কৃষি জমি ২১ লাখ ১ হাজার ৫৫৯ দশমিক ২৮৮৩ একর এবং অকৃষি জমি ১৭ লাখ ৬৯ হাজার ৩৮৫ দশমিক ০৪৫৪ একর। ওই জমির মধ্যে নিষ্কণ্টক কৃষি জমির পরিমাণ ৯ লাখ ৩৬ হাজার ৯৫৭ একর এবং নিষ্কণ্টক অকৃষি জমির পরিমাণ ১০ লাখ ৫৪ হাজার ২৮৮ দশমিক ৭৭৪৫ একর।
মন্ত্রী বলেন, জেলা প্রশাসন বেআইনীভাবে দখলকৃত খাসজমির চিহ্নিতকরণপূর্বক তা উদ্ধার করে সরকারের দখল নিয়ন্ত্রণে রাখছে। শুধুমাত্র কৃষি খাসজমি ভূমিহীনগণ প্রাপ্য বিধায় প্রকৃত ভূমিহীন বাছাই করে তাদের মধ্যে বন্দোবস্ত দেওয়ার কাজ চলমান রয়েছে। এদিকে সরকারি দলের সদস্য মোহাম্মদ সুবিদ আলী ভূঁইয়ার এক প্রশ্নের জবাবে ভূমিমন্ত্রী বলেন, ভূমি মন্ত্রণালয় ভূমির সুষ্ঠু ব্যবহার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ‘জাতীয় ভূমি ব্যবহার নীতি, ২০০১’ প্রণয়ন করেছে যা অত্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়েছে।
ভূমিমন্ত্রী বলেন, ওই নীতিমালাটি বাংলাদেশ গেজেটের অতিরিক্ত সংখ্যায় ২০০১ সালের ২১ জুনে প্রকাশিত। এছাড়া, ভূমির যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করা কৃষি জমি সুরক্ষার নিমিত্ত ‘কৃষি জমি সুরক্ষা ও ভূমি ব্যবহার আইন’ নামে একটি আইনের খসড়া তৈরি করা হয়েছে, যা বিধি বিধান অনুসরণপূর্বক আইনে পরিণত করার কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তিনি বলেন, ভূমির যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করা, ভূমির যথেচ্ছা ব্যবহার রোধকল্পে ‘জাতীয় ভূমি নীতি’র খসড়া প্রণয়ন করা হয়েছে এবং তা চূড়ান্তকরণের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। (ডেস্ক)